শিলাইদহে জাতীয়ভাবে উদযাপন হবে বিশ্বকবির জন্মজয়ন্তী

Kushtia, celebration, world poet, birth anniversary,
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার শিলাইদহ কুঠিবাড়ীতে জাতীয়ভাবে উদযাপিত হতে যাচ্ছে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৭তম জন্মজয়ন্তী উৎসব। কবিগুরুর স্মৃতি বিজড়িত কুঠিবাড়ীতে প্রতিবারের মতো এবারও আঙিনায় বাঁশ-কাঠ-ত্রিপল দিয়ে চলছে মঞ্চ নির্মাণের শেষ মুহূর্তের ব্যস্ততা, বাড়ছে দর্শনার্থীদের ভীড়।

মঙ্গলবার (৮ মে) ২৫ বৈশাখ উদ্বোধনী দিনে প্রধান অতিথি থাকবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী চলবে ১১ মে পর্যন্ত। সকল অতিথিদের আমন্ত্রণপত্র বিতরণ এবং জাতীয়ভাবে রবীন্দ্র জয়ন্তী উদযাপনে প্রস্তুত কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসন।

বিরূপ আবহাওয়া নিয়ে শঙ্কা থাকলেও ঝড়-বৃষ্টি মাথায় রেখেই বাইরে চলছে তিন দিনব্যাপী গ্রামীণ মেলার আয়োজন। রবীন্দ্র কুঠিবাড়ীতে রং-তুলির আঁচড়, ব্যবহৃত জিনিসপত্রকে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নের প্রস্তুতি প্রায় শেষ। এখন শুধুই অপেক্ষার পালা।

Kushtia, celebration, world poet, birth anniversary,

জানাগেছে, প্রায় দেড়যুগ পূর্বে সর্বশেষ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতি বিজড়িত কুষ্টিয়ার শিলাইদহ কুঠিবাড়ীতে জাতীয়ভাবে উদযাপিত হয়েছিল রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী। তাই জাতীয়ভাবে ১৫৭তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে এখন সাজসাজ রব পুরো কুঠিবাড়ী প্রাঙ্গন।

জমিদারী পরিচালনাসূত্রে শিলাইদহে অবস্থানকালে ১৯১৩ সালে গীতাঞ্জলীর অনুবাদে প্রথম সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। এখানে বসেই তার নৌকাডুবি, বলাকাসহ অসংখ্য গান, কবিতা ও সাহিত্যকর্ম রচনা বাংলা সাহিত্যকে করেছে সমৃদ্ধ। তাই রবীন্দ্র সাহিত্যে শিলাইদহের গুরুত্ব অন্যতম।

এই ঐতিহ্য থাকার পরও প্রতি বছর অস্থায়ীভাবে নির্মিত মঞ্চে চলে কবিগুরুর সাহিত্য ও শিল্পজীবন নিয়ে আলোচনা, গান ও কবিতা। তারপরও এখানে এসে কবিগুরুর শিল্প ও সাহিত্যকর্ম ব্যক্তি জীবনে অনুপ্রেরণা জোগায় এমনটায় মনে করেন রবীন্দ্র ভক্ত ও দর্শনার্থীরা।

স্থানীয় চেয়ারম্যান সালাহউদ্দিন তারেক জানান, এতো সব আয়োজন বিফলে যাবে যদি বৈশাখের ঝড়-বৃষ্টি আঘাত হানে। ঝড়-বৃষ্টি ও রাস্তার কারণে কিছুটা ভোগান্তি হলেও আয়োজনের প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন।

শিলাইদহ কুঠিবাড়ী কাষ্টডিয়ান মুখলেছুর রহমান ভুঁইয়া জানান, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতা ও কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবার জাতীয়ভাবে উদযাপিত হতে যাচ্ছে রবীন্দ্র জয়ন্তী। সে আয়োজনকে সফল করতে প্রত্নতত্ব বিভাগ সকল প্রস্তুতি প্রায় শেষ করেছে।

ad