সেপটিক ট্যাংকে ঢুকে একে একে তিনজন নিহত

Died in Norshingdi
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নরসিংদীতে নির্মাণাধীন একটি বাড়ির সেপটিক ট্যাংকে কাজ করতে গিয়ে তিন শ্রমিক নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছে আরও একজন।

সোমবার (৬ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে শহরের বিলাসদী ব্যাংক কলোনী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো- ঠিকাদার সিরাজ (৩৫), শ্রমিক রমিজ (১৭) ও রাকিব (২২)।

পুলিশ ও দমকল বাহিনী সূত্রে জানা যায়, শহরের বিলাসদি ব্যাংক কলোনী এলাকায় নতুন একটি বাড়ি নির্মাণের কাজ চলছিল। গত কয়েকদিন আগে সেপটিক ট্যাংকের ছাদের ঢালাই দেয়া হয়। আজ দুপুরে টাংকির ভেতরে কাঠ ও বাশ খুলার জন্য রমিজ নামে এক শ্রমিক ভেতরে প্রবেশ করে। বেশ কিছুক্ষন হয়ে গেলেও তার কোনো সারা শব্দ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে রাকিব নামে আরও এক শ্রমিককে পাঠানো হয়। যাওয়ার পর তারও কোনো শব্দ না পেয়ে ঠিকাদার সিরাজ সেখানে যায়।

তিনজনের কারোই কোনো সারা শব্দ না পেয়ে আরও এক শ্রমিক ভেতরে মাথা দিয়ে দেখতে গেলে সে অসুস্থ হয়ে যায়। পরে দমকল বাহিনীকে খবর দেয়া হয়। কিন্তু ট্যাংকের সরু মুখ ও অন্ধকারের কারণে ভেতরে আটকে পড়াদের উদ্ধার করা যাচ্ছিল না। পরে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট যৌথভাবে ট্যাংকির ছাদ ভেঙে চারজনকে উদ্ধার করে। তাদেরকে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নেয়া হলে কত্যর্বরত চিকিৎসক তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

নরসিংদী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স এর উপ সহকারী পরিচালক শফিকুর ইসলাম বলেন, ধারণা করা হচ্ছে নির্মাণাধীন বন্ধ ট্যাংকটিতে প্রচুর মিথেনাইল গ্যাস জমা হয়ে গিয়েছিল। তাই তারা ভেতরে ঢোকার সাথে সাথেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন।

নরসিংদী জেলা হাসপাতালের আবাসিক কর্মকর্তা আরএমও ডা. এম এন মিজানুর রহমান বলেন, হাসপাতালে আনার পর তিনজনকে মৃত হিসেবে পাওয়া যায়। অক্সিজেনের অভাব ও বিষাক্ত গ্যাসের কারণেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।

ad