স্বামীর পরকীয়া-নির্যাতনের প্রতিবাদে মুক্তিযুদ্ধ ভাষ্কর্যে স্ত্রী-সন্তান

Protests, sculptures of liberation war, wife and child
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুরে এক গৃহবধূ তার পুলিশ কর্মকর্তা স্বামীর পরকীয়া ও যৌতুকের জন্য নির্যাতনের প্রতিবাদ জানাতে শিশু সন্তানকে নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি ভাষ্কর্যে আশ্রয় নিয়েছেন।

বুধবার (১৬ মে) উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কার্যালয়ের পাশে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি ভাষ্কর্য“ স্মৃতিসৌধ-৭১”এ তারা প্রায় ঘন্টাব্যাপী অবস্থান গ্রহণ করেন।

গৃহবধূ রিতা আক্তার জানান, চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার গুয়াটোবা গ্রামের আব্দুছ ছাত্তারের ছেলে পুলিশের কনস্টেবল আব্দুল আজিজ ২০০৯ সালে তাকে বিয়ে করেন। রিতা ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার পাগলা গ্রামের বাসিন্দা।

বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন সময়ে যৌতুকের দাবিতে আজিজ তার রিতার ওপর নির্যাতন শুরু করে। নির্যাতন সইতে না পেরে রিতা একাধিকবার স্বামীর যৌতুকের দাবি পূরণ করেন।

সম্প্রতি আজিজ কনস্টেবল থেকে এএসআই পদে পদোন্নতি পান। পদোন্নতি পাওয়ার পর আজিজ আরও বেশি বেপরোয়া হয়ে উঠে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েণ। গত কিছুদিন ধরে তিনি আবারও তার স্ত্রীর কাছে মোটা অংকের যৌতুক দাবি করেন। যৌতুক না দেয়ায় খাবার খেতে না দিয়ে স্ত্রীকে নানাভাবে নির্যাতন করতে থাকেন।

এক পর্যায়ে রিতা বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক হিসেবে নগদ সাড়ে তিন লাখ টাকা ও কমপক্ষে তিন লাখ টাকার আসবাবপত্র এনে দিতে বাধ্য হন। তারপরেও আজিজের চাহিদা মতো যৌতুকের দাবি পূরণ না করায় তিনি তার স্ত্রী ও সন্তানকে বাসা থেকে বের করে বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দেন।

উপায় না দেখে রিতা তার তিন বছরের শিশু সন্তান আনন্দকে নিয়ে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কেওয়া গ্রামে বাবা-মায়ের বর্তমান বাসায় আশ্রয় নেন। আজিজ সেখানে গিয়েও রিতাকে মারধর করেন এবং সংসারের ভরণ-পোষণ দেয়া বন্ধ করে দেন।

পরে রিতা তার স্বামীর বিরুদ্ধে পুলিশ সদর দপ্তরে অভিযোগ করেন। কিন্তু তাতেও নির্যাতন কমেনি। ফলে বাধ্য হয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর হাকিমের আদালতে বিচার প্রার্থনা করেন রিতা। আজিজ বর্তমানে খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ লাইনে চাকরি করছেন।

অভিযুক্ত পুলিশের এএসআই আব্দুল আজিজ বলেন, অভিযোগগুলোর কোনো ভিত্তি নেই। এসব বিষয়ে পুলিশ বিভাগ তদন্ত করছে। তদন্তের পরই সঠিক তথ্য জানা যাবে।

তিনি বলেন, আজকাল সামান্য বিষয়াদি নিয়ে মহিলারা স্বামী বা পুরুষের বিরুদ্ধে যৌতুকসহ নির্যাতনের নানা মিথ্যা অভিযোগ যেমনিভাবে করে থাকে, তেমনি আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ করেছে রিতা।

ad