অসুস্থ সেই মায়ের দায়িত্ব নিতে চান কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক

dhaka foothpath
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: রাজধানীর সোবাহানবাগ মসজিদ সংলগ্ন ফুটপাতে অসুস্থ হয়ে পড়ে থাকা মা ও তার শিশু সন্তানদের পুনর্বাসনের দায়িত্ব নিতে চান কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক। কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন তার অফিশিয়াল ফেসবুক পেইজে এ সংক্রান্ত একটি পোষ্ট দিয়েছেন।

ফেসবুক পোস্টে জেলা প্রশাসক লিখেছেন, রাজধানীর কলাবাগানে ফুটওভার ব্রিজের নিচে পড়ে থাকা সেই অসুস্থ মায়ের দায়িত্ব নিতে চাই আমি। শুধু কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক হিসেবে নয়, একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে নিজের দায়বদ্ধতা থেকে ওই পরিবারকে পুনর্বাসন করবো। এছাড়া ওই পরিবার যাতে স্বচ্ছলভাবে চলতে পারে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সে ব্যবস্থাও করা হবে।

দাপ্তরিক কাজে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক ঢাকায় অবস্থান করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আমিন আল পারভেজ বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের মাধ্যমে অসহায় ওই মায়ের কথা জানতে পেরে জেলা প্রশাসক স্যার ওই পরিবারটিকে পুনর্বাসনের উদ্যোগ নিতে চান যদি পরিবারটির সম্মতি থাকে।জেলা প্রশাসক স্যার অসুস্থ ওই মাকে দেখতে হাসপাতালেও যেতে পারেন বলে জানিয়েছে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

তিনি আরও বলেন, পরিবারটির যদি চায় সাধ্যমতো চেষ্টা করা হবে তাদের পুনর্বাসনে।

ঢাকার ফুটপাতে অসুস্থ হয়ে পরে থাকা ও নারীর বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলায় বলে জানাগেছে। তবে সুনির্দিষ্টভাবে কোন উপজেলায় তার বাড়ি ছিল জানা যায়নি। পরিবারটিকে ফিরিয়ে আনার জন্য ঢাকার কুড়িগ্রাম সমিতিও দায়িত্ব নিয়েছে।

গত ৬ জুলাই শুক্রবার রাজধানীর সোবহানবাগ মসজিদের কাছে ফুটপাতে প্রচন্ড জ্বর নিয়ে পড়ে ছিলেন ফরিদা বেগম নামের এক মহিলা। রবিবার (৮ জুলাই) অসুস্থ মায়ের মাথায় দুই শিশু সন্তানকে বোতলে করে পানি ঢালতে দেখে তার খাবারের ব্যবস্থা করে ছবি তুলে ফেসবুকে পোষ্ট করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম জুয়েল।

ফেসবুকে পোস্ট করার তা দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়। পরে জানা যায়, অসুস্থ ওই মায়ের নাম ফরিদা। তার বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলায়। দারিদ্রতার কারণে জীবিকার তাগিদে কয়েক বছর আগে তারা ঢাকায় চলে যান। পরে তাকে নিয়ে ধানমন্ডির গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে ভর্তি করে জুয়েল, পারভেজ ও রিপন নামের কয়েকজন তরুণ।

ad