রূপগঞ্জে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে লাগাতার ধর্ষণ

rape 3
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে স্বামীর হাত-পা বেঁধে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তার সামনেই স্ত্রীকে লাগাতার ধর্ষণ করেছে দুই বখাটে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ সোমবার (১৪ মে) দুপুরে সালাউদ্দিন নামে এক ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ধর্ষক সালাউদ্দিন দিঘী বরাব বৌবাজার এলাকার দ্বীন ইসলামের ছেলে। আরেক ধর্ষকের নাম আবুল হাসেম। সে মোগরাকুল এলাকার মৃত কুদ্দুস আলীর ছেলে। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে সে।

রূপগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর শহিদুল আলম জানান, ওই গৃহবধূর স্বামীর বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলার কছাকাটা থানার বেগুনিপাড়া এলাকায়। স্বামী-স্ত্রী স্থানীয় একটি মেলামাইন কারখানায় কাজ করে। তারাব পৌরসভার বরাব বাজার এলাকায় একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করে তারা। গত ১১ মে ভোররাতে তারা কুড়িগ্রাম থেকে ফিরে রূপগঞ্জের বরাব বাসষ্টেশনে এসে নামেন।

তিনি জানান, সেখান থেকে বাসায় যাওয়ার পথে দিঘী বরাব বৌবাজার এলাকায় পৌঁছামাত্র আবুল হাসেম ও সালাউদ্দিন তাদের পথরোধ করেন। একপর্যায়ে স্বামীকে হাত-পা বেঁধে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রাখে তারা। পরে দু’জন মিলে স্ত্রীকে লাগাতার ধর্ষণ শেষে সাথে থাকা গহনা ও দুটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও জানান, গ্রেপ্তারকৃত সালাউদ্দিন গণধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। অন্য আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ad