সিলেটে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চালালেন মেয়র

Sylhet mayor
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: দীর্ঘ প্রায় এক যুগেরও বেশি সময় ধরে কাঠ ব্যবসায়ীদের দখলে থাকা সিলেট পুরাতন রেলওয়ে স্টেশনের পেছনের প্রায় এক কিলোমিটার সড়ক উদ্ধার করেছে সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)।

সোমবার (৭ মে) বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সিসিকের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়।

অভিযানে দক্ষিণ সুরমার বঙ্গবীর রোড ও কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকার সড়কের দু’পাশে দখল করে নেয়া শতাধিক অবৈধ স্থাপনা বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

এর আগে সিসিকের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী গত সপ্তাহে নিজে উপস্থিত থেকে ও সিসিকের পক্ষ থেকে মাইকিং করে সড়কের দু’পাশ থেকে কাঠ ও অবৈধ স্থাপনা স্বেচ্ছায় অপসারণের নির্দেশ দেন। কিন্তু নির্দেশ না মানায় সোমবার চালানো হয় অভিযান। অভিযানে পুরাতন রেলওয়ে স্টেশনের পেছনের প্রায় এক কিলোমিটার সড়ক কাঠ ও সিএনজি অটোরিক্সা স্ট্যান্ড অপসারণ করা হয়। গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে রাস্থা দখল করে অবৈধভাবে নির্মিত বিভিন্ন স্থাপনা।

পরে ক্বীনব্রিজ থেকে কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল সড়কের দু’পাশ দখল করে গড়ে তোলা অবৈধ ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়া হয়।

এ সময় মেয়র আরিফুল বলেন, দীর্ঘ এক যুগেরও বেশী সময় থেকে কিছু অসাধু লোক রেলওয়ের এই সড়কটি দখল করে কাঠ ব্যবসা ও অবৈধ সিএনজি অটোরিক্সা স্ট্যান্ড গড়ে তুলেছিল।  সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বার বার স্থাপনা সরাতে অনুরোধ জানানো হলেও তারা কোন কর্ণপাত করেনি। যার কারণে অভিযান চালানো হয়েছে।

মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, কদমতলী, বাবনা মোড় এলাকাসহ নগরীর প্রতিটি সড়ক, ছড়া, খাল ও ড্রেনের উপর অবৈধভাবে নির্মিত সকল স্থাপনা নিজ উদ্যোগে অপসারণের অনুরোধ জানান।

অভিযানে সিসিকে প্রধান নির্বাহী এ জেড নূরুল হক, কাউন্সিলর মো. তৌফিক বক্স, প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমান রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গির হোসেনসহ পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিল।

ad