অধিপত্য বিস্তারের জেরেই খুন হন ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল

Narsingdi CHairman
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নরসিংদীর রায়পুরার বাঁশগাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল হক হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত দুই আসামীর মধ্যে আব্দুল আলী মৃধা (২০) হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দী দিয়েছেন।

নরসিংদীর পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন রবিবার (৬ মে) সন্ধ্যায় পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

পুলিশ সুপার জানান, চরাঞ্চলের বাঁশগাড়ী এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে দুই গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে চলা বিরোধকে কেন্দ্র করেই ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল হক হত্যার শিকার হয়েছেন। পুলিশী তদন্ত ও এ জবানবন্দীর মধ্যদিয়ে হত্যার মূল কারণ এবং কারা হত্যায় জড়িত এসব বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে। হত্যায় জড়িত অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

তদন্তের স্বার্থে এখনই চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার সকল তথ্য প্রকাশ করা সম্ভব হচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

গত বৃহস্পতিবার (৩ এপ্রিল) রায়পুরা উপজেলা সদর থেকে বাড়ি ফেরার পথে বাঁশগাড়ীর আড়াকান্দা এলাকায় বাঁশগাড়ী ইউপির ৬ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান সিরাজুল হককে গুলি করে হত্যা করে একদল দুর্বৃত্ত। এ ঘটনায় ৩০ জনের নাম উল্লেখ করে রায়পুরা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের ছেলে আশরাফুল হক। পরে পুলিশ আব্দুল আলী মৃধা ও আবুল কালাম ওরফে বোমা কালাম নামে দুই আসামীকে গ্রেপ্তার করে।

ad