আমতলীতে যুবদল নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

stabbled
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: বরগুনার আমতলীতে জমি বিরোধের জের ধরে ইউসুফ মুন্সি নামে এক যুবদল নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় আলমগীর হোসেন (৩৮) নামের একজন আহত হয়।

মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে উপজেলার চাউলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার চাউলা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ও আঠারোগাছিয়া ইউনিয়ন যুবদল সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ মুন্সী মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে বন্ধু আলমগীর হোসেনের সঙ্গে পটুয়াখালী হাসপাতালে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে মিরাজের নির্মাণাধীন দোকানের পাশে ওত পেঁতে থাকা ২০/২৫ জন সন্ত্রাসী ইউসুফ মুন্সীকে হামলা চালিয়ে কুপিয়ে ও আলমগীরকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।

তাদের ডাক চিৎকারে লোকজন ছুটে আসে। সঙ্কটজনক অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। ওই হাসপাতালে রাত ১১টায় তার মৃত্যু হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন জানান, গত চার বছর পূর্বে ইউসুফ মুন্সি ও নিজাম তালুকদারের সাথে চাউলা বাজারে একটি দোকান ঘরের জায়গা দখলকে কেন্দ্র করে বিরোধ চলে আসছিল। এ ঘটনায় উভয়পক্ষে একাধিক মামলা রয়েছে।

নিহত ইউসুফের ছোট ভাই সাঈদ মুন্সী মুঠোফোনে বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে নিজাম তালুকদার, রফিক তালুকদার, রুবেল, জাফর হাওলাদার, মোদাচ্ছের হাওলাদারসহ ২০/২৫ জন সন্ত্রাসী এলোপাতারী কুপিয়ে আমার ভাইকে হত্যা করেছে। আমার ভাইকে যারা কুপিয়ে হত্যা করেছে তাদের নাম মৃত্যুর পূর্বে আমার ভাই বলে গেছেন।

আহত আলমগীর হোসেন বলেন, পটুয়াখালী হাসপাতালে ভর্তি আমার মাকে দেখতে যাওয়ার পথে নিজাম তালুকদার ও তার  সহযোগিরা মোটরসাইকেল থামিয়ে ইউসুফ মুন্সীকে কুপিয়ে হত্যা করে ও আমাকে পিটিয়ে আহত করে।

আমতলী থানার ওসি সহিদ উল্যাহ বলেন, নিহতের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ad