আমতলীর পায়রা নদীতে নিখোঁজ শিশু ২ দিনেও উদ্ধার হয়নি

Payra River
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: বরগুনার আমতলীতে পায়রা নদীতে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়া মারুফ হাসান (১০) নামের এক শিশুকে গত দুইদিনেও উদ্ধার করা যায়নি। শিশুটিকে হারিয়ে পরিবারে শোকের মাতম চলছে।

সোমবার (১৬ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ৩টা পর্যন্ত শিশুটিকে উদ্ধার করা যায়নি।

মারুফ উপজেলার পৌর শহরের বাসুগী গ্রামের মো. জাফর হাওলাদারের ছেলে এবং আমতলী বন্দর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন তাহফিজুল কুরআর ক্যাডেট হাফিজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র।

জানাগেছে, পৌর শহরের গরুর বাজার এলাকায় রবিবার বিকালে চার বন্ধু মিলে পায়রা নদীর কিনারে ছোঁয়াছুয়ি খেলছিল। এক পর্যায় তিন বন্ধু পাড়ে উঠলেও মারুফ উঠতে পারেনি।

খবর পেয়ে আমতলী ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে যায়। গত রবিবার রাত ৮টার দিকে বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল শিশুটিকে উদ্ধার কাজে অংশ নেয়।

ডুবুরি দলের প্রধান নবিন ও রওশানসহ পাঁচজন অব্যাহত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া স্থানীয় লোকজন নিজস্ব প্রচেষ্টায় উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছেন।

উদ্ধার কাজে অংশ নেয়া ডুবুরি নবিন ও রওশান বলেন, ডুবে যাওয়া স্থান থেকে দুই কিলোমিটারের মধ্যে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছি। কিন্তু শিশুটির কোনো সন্ধান পাচ্ছি না।

আমতলী ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার লিটন হাওলাদার জানান, বরিশাল বিভাগীয় ফায়ার সার্ভিস অফিস থেকে পাঁচ সদস্যের একটি ডুবুরি দল এসে উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছেন। তারা এখনও মারুফের কোনো সন্ধান পায়নি।

আমতলী থানার ওসি মো. সহিদ উল্যাহ বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। তারা উদ্ধার কাজে সহযোগিতা করছে।

আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সরোয়ার হোসেন বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছি। যতক্ষণ পর্যন্ত নিখোঁজ শিশুটি উদ্ধার না হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত উদ্ধার কার্যক্রম অব্যাহত রাখার নির্দেশ দিয়েছি।

ad