ঈশ্বরগঞ্জে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে স্ত্রীকে হত্যা করল স্বামী

Mymonsingh
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে মুর্শিদা বেগম (২৫) নামের এক গৃহবধূকে হত্যা করেছে পাষণ্ড স্বামী।

শনিবার (২ জুন) সকাল ৮টার দিকে উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের মহেশপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত গৃহবধূ মাইজবাগ ইউনিয়নের কুমুড়িয়ার চর গ্রামের আব্দুল খালেকের মেয়ে। ঘাতক স্বামী জহিরুল উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের মহেশপুর গ্রামের মঞ্জুরুল হকের ছেলে। তামিম নামে তাদের তিন বছরের এক ছেলে রয়েছে।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি বদরুল আলম খান জানান, শুক্রবার জহিরুলের বাড়িতে বেড়াতে আসে মুর্শিদার মা ও বোন। পরদিন সকালে মেহমানদের জন্য রান্না ঘরে পিঠা বানাতে থাকে মুর্শিদা। পরে সকালে মুর্শিদাকে বসতঘরে ডেকে নিয়ে যায় স্বামী জহিরুল।

তিনি জানান, এক পর্যায়ে পাশের ঘরে থাকা ছেলে সন্তান তামিম কান্না শুরু করে। কিছুক্ষণ পর ঘরের দরজা খুলে বের হয়ে চলে যায় জহিরুল। মুর্শিদার ছোট বোন মদিনা তার বোন মুর্শিদাকে ডাক দেয়।

তিনি আরও জানান, কোনো সাড়া না পেয়ে মদিনা ঘরে ঢুকলে বিছানার ওপর গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় মুর্শিদার লাশ দেখতে পায়। এ ঘটনা দেখে মদিনা চিৎকার দিলে বাড়ির লোকজন ঘরে ঢুকে মুর্শিদার মরদেহ দেখতে পায়।

ওসি বদরুল আলম খান জানান, খবর পেয়ে ঈশ্বরগঞ্জ থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে, তবে এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করা যায়নি।

ad