কমলগঞ্জে কালবৈশাখী ঝড়ে শতাধিক ঘর-বাড়ি বিধ্বস্ত

Kamalganj, Kalbishakhi storm,
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের ওপর বয়ে যাওয়া কালবৈশাখী ঝড়ে উপজেলার আদমপুর, ইসলামপুর ও মাধবপুর ইউনিয়নের শতাধিক ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। উপড়ে পড়েছে হাজারো গাছপালা। ১১ কেভির ৩০টি খুঁটি ভেঙ্গে বিদ্যুত ব্যবস্থা লন্ডভন্ড হয়ে পড়েছে।

বুধবার (৮ মে) ভোর রাত ৪টায় প্রচন্ড কাল বৈশাখী ঝড় বয়ে যায়। ঝড়ের সাথে সাথে আলোর ঝলকানীর সাথে সাথে প্রচন্ড শব্দ করে বজ্রপাত ঘটে। এতে করে ঘর-বাড়িতে অবস্থানকারী মানুষরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

Kamalganj, Kalbishakhi storm,

কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়কে গাছ পড়ে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় ৮ ঘন্টা পর দুপুর ১২ টায় সড়ক যোগাযোগ চালু করা হয়। বিদ্যুত লাইন লন্ডভন্ড হয়ে যাওয়ার কারণে এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত পুরো কমলগঞ্জ অন্ধকারে নিমজ্জিত।

লাউয়াছড়ায় রেল লাইনের ওপর গাছ ভেঙে পড়ায় ২ দফায় (উদয়ন ও কালনী ট্রেন) সিলেটের সাথে সাড়ে ৬ ঘন্টা ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ ছিল। পরে গাছ কেটে ট্রেন যোগাযোগ স্বাভাবিক করা হয়।

ঝড়ে আদমপুর ইউনিয়ের আদখানি, জালালপুর কানাইদাসী, উত্তর ভাগসহ প্রায় ১০টি গ্রামে ব্যাপক বাড়ি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়। রাস্তার গাছপালা উপড়ে পড়ে। আদমপুরের বিভিন্ন এলাকায় পল্লী বিদ্যুত এর ১১ কেভি ৫টি খুঁটি ভেঙে পড়েছে।

Kamalganj, Kalbishakhi storm,

চা বাগান এলাকায় টিনের ঘরে চাল উড়িয়ে নিয়ে গেছে। কয়েক শতাধিক গাছপালা উপড়ে পড়েছে। মাধব চাবাগান, মাঝের ছড়াসহ বিভিন্ন গ্রামে ২৫টি বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে পড়েছে।

ইসলামপুর ইউনিয়নে প্রায় ২ শতাধিক স্থানে বিদ্যুৎ লাইনে তার ছিড়ে পড়েছে। বুধবারের ঝড়ে ৩৩ কেভির লাইনের মাগুরছড়া নামক স্থানে খুঁটি ভেঙে পড়েছে। পাহাড়ের ভেতরে বেশ কয়েকটি গাছ পড়ায় কমলগঞ্জ শ্রীমঙ্গল সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

কমলগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম মোবারক হোসেন জানান, ঝড়ে ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে প্রায় ৩০টি খুঁটি ও দুই শতাধিক স্থানে তার ছিড়ে গেছে। বিদ্যুত ব্যবস্থা স্বাভাবিক করতে ২ দিন লেগে যাবে।

Kamalganj, Kalbishakhi storm,

কমলগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমর্কতা মো. আছাদুজ্জামান বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত ঘরের তালিকা দেয়ার জন্য চেয়ারম্যান দের বলা হয়েছে। মাধবপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পুস্পকুমার কানু ঝড়ের ক্ষয়ক্ষতির কথা জানিয়ে বলেন, তার ইউনিয়নে ৬০টি ঘর বিধস্ত হয়েছে।

অন্যদিকে কালবৈশাখী ঝড় ও অব্যাহত ভারি বর্ষণে কমলগঞ্জ উপজেলা কয়েক হাজার হেক্টর বোরো ফসলেরও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

ad