কলারোয়ায় ধান কাটাকে কেন্দ্র করে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

সাতক্ষীরা
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ধান কাটা নিয়ে বিরোধের জের ধরে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে অপর এক যুবক।

বৃহস্পতিবার (২৬ এপ্রিল) রাতে উপজেলার জয়নগর ইউনিয়নের খোর্দবাঁটরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম মেহেদী হাসান (২৪)। সে উপজেলার খোর্দবাটরা গ্রামের কেরামত আলী গাজীর ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহতের বাবা কেরামত আলী গাজী জানান, খোর্দবাটরা গ্রামের গফ্ফার গাজীর ছেলে ধানকাটা শ্রমিক জাহিদ হাসানের সাথে (২৬) বিকালে ক্ষেতে ধান কাটা নিয়ে কথাকাটাকাটি হয় মেহেদী হাসানের। এরই জের ধরে মেহেদী হাসান ধান না কেটে নিজ বড়িতে ফিরে আসে। পরে ক্ষিপ্ত হয়ে জাহিদ হাসান ও তার মা আলেয়া খাতুন মেহেদীর বাড়িতে এসে তাকে মাঠে ধান কাটতে যেতে বলে। এ সময় মেহেদী অস্বীকৃতি জানালে জাহিদ একটি গাছের ডাল দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি মারপিট করলে সে গুরুতর আহত হয়।

পরে খবর পেয়ে প্রতিবেশীরা মেহেদী হাসানকে উদ্ধার করে স্থানীয় সরশকাটি বাজারের গ্রাম্য ডাক্তার প্রদীপ কুমার দের চেম্বারে নিয়ে যায়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে কলারোয়া হাসপাতালে পাঠানো হয়।

কলারোয়া হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার শফিকুল ইসলাম জানান, হাসপাতালে আনার আগেই মারা যায় মেহেদী। তার শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

কলারোয়া থানার ওসি বিপ্লব কুমার নাথ জানান, সরশকাটি পুলিশ ফাঁড়ি পুলিশ সদস্যদের এ ঘটনায় জড়িতদের আটক করার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।এখনো কোনো মামলা হয়নি।

ad