গুপ্তধন দেয়ার লোভ দেখিয়ে মা-মেয়েকে ধর্ষণ

rape 3
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: গুপ্তধন দেয়ার লোভ দেখিয়ে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ডেকে এনে মা-মেয়েকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় ভিকটিম মা ৬-৭ জনের বিরুদ্ধে গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

শুক্রবার (১১ মে) রাতে উপজেলার করতোয়া নদীর বালু চরে এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তির নাম সাদা মিয়া (৩২)। সে গোবিন্দগঞ্জের সমসপাড়া গ্রামের মোহশীন আলীর ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ভিকটিম নারীদের বাড়ি জামালপুরে। একটি চক্র জিনের বাদশা পরিচয় দিয়ে ভিকটিম নারীর কাছ থেকে গুপ্তধন দেয়ার কথা বলে বিকাশের মাধ্যমে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। শনিবার গুপ্তধন দেয়ার কথা বলে তাকে গোবিন্দগঞ্জে ডাকা হয়। রাতে তিনি মেয়েকে নিয়ে গোবিন্দগঞ্জ আসেন।

এরপর তাদের করতোয়া নদীর বালু চরে নিয়ে যায় চক্রটি। পরে সেখানে নিয়ে তাদের কাছে থাকা স্বর্ণালংকার ও নগদ ২০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় তারা। পরে নদীর চরে নিয়ে গিয়ে তাকে ও তার সঙ্গে থাকা মেয়েকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে চক্রের সদস্যরা।

গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন, ভিকটিম মা ও মেয়েকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য গাইবান্ধা আধুনিক সদর হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহভাজন আসামী সাদাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।  তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ad