তিন সাংবাদিককে পেটালেন তালতলী উপজেলা চেয়ারম্যান!

barguna amtali
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: বরগুনার তালতলী উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মিন্টুর বিরুদ্ধে এসএ টিভির সাংবাদিক নুরুজ্জামান ফারুক ও স্থানীয় দু’ সাংবাদিককে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (২৯ মার্চ) সকালে উপজেলা নির্বাচন অফিস প্রাঙ্গনে এ ঘটনা ঘটে।

জানাগেছে, সকালে ইউপি নির্বাচনের প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হচ্ছিল। এসময় এসএ টিভির সাংবাদিক নুরুজ্জামান ফারুক ক্যামেরায় ছবি ধারন করছিলেন। উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মিন্টু ফারুককে ছবি ধারনে বাঁধা দেয়। তার বাঁধা উপেক্ষা করে করে ফারুক ছবি তুললে মিন্টু ও তার সহযোগীরা তাকে মারধর শুরু করে।  তাকে রক্ষায় স্থানীয় সাংবাদিক খায়রুল ইসলাম আকাশ ও মিজানুর রহমান এগিয়ে গেলে তাদেরও মারধর করা হয়।

নুরুজ্জামান ফারুক অভিযোগ করেন বলেন, বিনা কারণে উপজেলা চেয়ারম্যান ও তার শ্যালকসহ ১০/১২ জন ছাত্রলীগ কর্মী আমাকে মারধর করেছে। আমাকে রক্ষায় দু’সাংবাদিক এলে তাদেরকেও বেধরক মারধর ও ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়া হয়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি আমি।

তালতলী উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মিন্টু মারধরের কথা অস্বীকার করে মুঠোফোনে বলেন, ছাত্রলীগের কর্মীদের সাথে সাংবাদিকদের কথা কাটাকাটির সময় উভয়পক্ষকে নির্বৃত্ত করেছি। বরগুনার সিনিয়র সাংবাদিকদের সাথে বৈঠক চলছে। আশাকরি অপ্রীতিকর ঘটনার সুষ্টু সমাধান হবে।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা কমলেশ চন্দ্র হালদার মুঠোফোনে বলেন, কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ad