নীলফামারীতে অগ্নিকাণ্ডে ১৮ বসতঘর পুড়ে ছাই

fire
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নীলফামারী সদর উপজেলায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নয়টি পরিবারের ১৮টি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

বুধবার (৬ ডিসেম্বর) রাত ১০টার দিকে পলাশবাড়ি ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের খলিশা পচাঁ গ্রামে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

এদিকে, ঘরবাড়ি হারিয়ে পরিবারগুলো কনকনে শীতের মধ্যে খোলা আকাশের নিচে অবস্থান নিয়েছে। এই শীতের মধ্যে শিশুদের নিয়ে কিভাবে থাকবে তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছে পরিবারগুলো।

ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা জানান, রাত ১০টার দিকে খলিশা পচাঁ গ্রামের গনেশ চন্দ্র মোহন্তের ঘরের কুপির আগুন থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তের মধ্যেই আগুন আশপাশের ঘরগুলোতে ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসে খবর দিয়ে নিজেরাই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। পরে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে ১ ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

তবে এর আগেই গণেশ ছাড়াও নলনী কান্ত রায়, গলিমন মোহন্ত, রমেশ মোহন্ত, কৃষ্ণ মোহন্ত, নবকান্ত মোহন্ত, হরেণ মোহন্ত, ধীরেন মোহন্ত ও তেল্লি বালার ১৮টি বসতঘর ও নয়টি রান্নাঘর ভস্মীভূত হয়। এছাড়া তাদের ছয়টি গোয়ালঘরও আগুনে পুড়ে যায়।

স্থানীয় ওয়ার্ড সদস্য জালাল উদ্দিন বলেন, পরিবারগুলোর কিছুই রক্ষা পায়নি। ধানের পুঞ্জ, খড়ের পুঞ্জ, আসবাবপত্র, নগদ টাকা সবকিছুই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে আগুনে।

ফায়ার সার্ভিস এ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স নীলফামারী স্টেশন অফিসার এনামুল হক প্রামানিক জানান, প্রাথমিকভাবে সাত লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণ করা হয়েছে।

পলাশবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মমতাজ উদ্দিন প্রামানিক বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সহযোগিতার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

ad