নীলফামারীতে শিশু ধর্ষণকারী শুক্কুর আলী গ্রেপ্তার

Nilphamari, child rapist, Shukkur Ali, arrested,
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নীলফামারীতে তৃতীয় শ্রেণির এক শিশু ছাত্রীকে (৯) ধর্ষণকারী শুক্কুর আলীকে (৪৫) একমাস পর কুড়িগ্রামের ভারতীয় সীমান্ত থেকে গ্রেপ্তার করেছে নীলফামারী থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (৩ এপ্রিল) ভোররাতে নীলফামারীর সদর থানার উপ-পরিদর্শক হারিছুর রহমান সুজনের নেতৃত্বে কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী উপজেলার শিংঝাড় বিওপি গ্রামে বিজিবি ক্যাম্পের ৫০০ গজ অদূরে একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিকালে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন।

গ্রেপ্তারকৃত শুকুর আলী নীলফামারীর সদরের লক্ষ্মীচাপ ইউনিয়নের দুবাছুড়ি গ্রামের মৃত জুনায়েত আলীর ছেলে। সে দীর্ঘদিন থেকে স্ত্রী সন্তান নিয়ে একই উপজেলা পলাশবাড়ি ইউনিয়নের কেরানীপাড়ায় শ্বশুর আব্দুল খালেকের বাড়িতে বসবাস করতো।

দুপুরে নীলফামারী পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন জানান, গত ১ মার্চ পলাশবাড়ি পূর্ব সহদেব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে দুপুরের দিকে একা পেয়ে বাড়ির পাশের ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে কেরানীপাড়ার ট্রাক্টর চালক শুক্কুর আলী।

এরপর ভয়-ভীতি দেখিয়ে আহত অবস্থায় শিশুটিকে সেখানে রেখে পালিয়ে যায় ধর্ষক শুক্কুর আলী। ওই অবস্থায় মেয়েটি বাড়ি ফিরে আসে। সন্ধ্যার দিকে শিশুটির দিনমজুর মা কাজ শেষ করে বাড়িতে ফিরে এসে ঘটনা জানতে পেরে মেয়েকে স্থানীয়দের সহায়তায় নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করেন।

সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ঘটনার পরদিন ২ মার্চ শুক্কুর আলীকে আসামী করে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন শিশুটির বাবা। মামলা দায়েরর পর থেকেই গা ঢাকা দেয় শুক্কুর আলী।

ad