পঞ্চগড়ে ৮ ঘন্টার চেষ্টায় মাটি চাপা পড়া যুবককে উদ্ধার

panchagarh
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে সেফটি ট্যাংকের জন্য গর্ত খননের সময় মাটি চাপা পড়া এক যুবককে প্রায় ৮ ঘন্টার চেষ্টায় জীবিত উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

বুধবার (২৯ মার্চ) বিকালে উপজেলা সদরের সবুজপাড়া এলাকায় মাটি চাপা পড়েছিল ওই যুবক। পরে রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে তাকে উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার হওয়া ওই যুবক নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার নয়নি বাকডোকরা এলাকার ঝরেন রায়ের ছেলে ঈশ্বর চন্দ্র রায় (২০)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিকাল ৪টায় বাবুল কসাইয়ের বাড়িতে সেফটি ট্যাংকের জন্য গর্ত খননের কাজ করছিল  ঈশ্বর চন্দ্র ও রুবেল ইসলাম । এসময় হঠাৎ মাটি ধসে পড়লে চাপা পড়ে ঈশ্বর চন্দ্র। তাকে উদ্ধার করতে নামলে রুবেলও মাটির নিচে চাপা পড়ে। স্থানীয়রা দ্রুত রুবেলকে উদ্ধার করতে সক্ষম হলেও ঈশ্বর চন্দ্রকে উদ্ধার করতে ব্যর্থ হয়। স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে ৫টি ইউনিটের যৌথ প্রচেষ্টায় প্রায় ৮ ঘন্টা পর রাত ১১ টা ৪৫ মিনিটে জীবিত উদ্ধার করা হয় ঈশ্বর চন্দ্রকে। পরে তাকে দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়।

নীলফামারী ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক সিরাজুল ইসলাম তালুকদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ad