পাটগ্রামে কসাইয়ের ছুরিকাঘাতে কসাইয়ের মৃত্যু

Patagram, Butcher, Stab, Death,
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের পাটগ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কসাই হাফিজার রহমানের ছুরির আঘাতে নজরুল ইসলাম নজু (৫০) নামের অপর এক কসাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন নিহতের ছেলে হুমায়ুনসহ আরও সাতজন । আহতরা বর্তমানে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বুধবার (৬ জুন) সকালে নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার (৫ জুন) রাতে উপজেলার কোটতলীর রেলগেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে গোটা উপজেলা শহরজুড়ে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

নিহত নজরুল ইসলাম উপজেলার কোটতলী এলাকার ইউসুফ আলীর ছেলে এবং ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রবিউল ইসলামের বড় ভাই।

জানাগেছে, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কয়েকদিন আগে নিহত নজরুল কসাইয়ের ছেলে হুমায়ুনের সাথে অপর কসাই হাফিজারের ছেলের দ্বন্দ্ব লাগে। এ নিয়ে মঙ্গলবার রাতে শালিসি বৈঠক হওয়ার কথা ছিল।

এরইমধ্যে নজরুল কসাই হাফিজারের দোকানের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় দুজনের কথা কাটাকাটি হয়। এর এক পর্যায়ে দুপক্ষের লোকজন এসে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় হাফিজারের ছুড়ির আঘাতে নজরুলের মৃত্যু হয়। এতে নিহতের ছেলে হুমায়ুন ও কাউন্সিলর রবিউলসহ আরও পাঁচজন আহত হন।

পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করা হয়।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি,তদন্ত) ফিরোজ কবির জানান, পুলিশ খবর পেয়ে দ্রুত সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে ও আহতদের উদ্ধার করে পাটগ্রাম স্বাস্থ্য-কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরজু মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। তবে এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে পুলিশ।

ad