পুঠিয়ায় বেপরোয়া মাদক ব্যবসায়ীরা

Puthiya
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: রাজশাহীর পুঠিয়ায় ঈদকে সামনে রেখে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কিছু অসাধু কর্তাদের বিশেষ ঈদ চাহিদা মেটাতে তারা কেবল বানেশ্বর-বেলপুকুর এলাকার ১১টি পয়েন্ট থেকে প্রতিদিন লাখ লাখ টাকার ইয়াবা, ফেনসিডিল, হেরোইনসহ বিভিন্ন প্রকার মাদকদ্রব্য কেনা-বেচা করছে।

এদিকে, উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি হলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোকজনের রহস্যজনক নীরবতায় সাধারণ জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিস ও পুঠিয়া থানা সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার ৬টি ইউপি এলাকায় প্রায় সাড়ে ৪ শ’ জন তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী রয়েছে। এর মধ্যে বানেশ্বর ও বেলপুকুর ইউপি এলাকাতে দু’টি গ্রুপের মধ্যে প্রায় ৩ শতাধিক শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী রয়েছে।

অনুসন্ধানে জানাগেছে, উপজেলার বানেশ্বর বাজার ও বেলপুকুর এলাকার তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীরা ক্ষমতাসীন দলের দু’জন প্রভাবশালী নেতার মাধ্যমে থানা পুলিশ ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কিছু অসাধু কর্তাদের নিয়ন্ত্রণ করছেন। এর ফলে ওই দু’টি এলাকায় প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসায়ীরা দেদারছে তাদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বানেশ্বর এলাকার এক মাদক সরবরাহকারী বলেন, ভারতের সীমান্ত এলাকা চারঘাট উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে মাদকদ্রব্যগুলো বানেশ্বর বাজার-বেলপুকুর এলাকায় প্রবেশ করে। আর সেখান থেকে বিভিন্ন মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সরবরাহ করা হচ্ছে মাদকদ্রব্য।

তিনি আরও বলেন, থানায় নতুন কর্মকর্তা আসার পর প্রথম প্রথম কিছু দিন হাতে গোনা দু’চার জন মাদক ব্যবসায়ীদের আটক করে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করেন। পরে তাদের সাথে নতুন করে মাসোয়ারা চুক্তি করায় অভিযান ঢিলেঢালাভাবে চলছে।

অপর এক র্শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী জানায়, এই ঈদে থানা ও মাদকদ্রব্য অফিসসহ কয়েকটি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকজনকে মাসোহারার পাশাপাশি মোটা অংকের পরবী দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। যার ফলে পূর্বের চেয়ে এই ঈদে আরো বেশী সংখ্যক সরবরাহকারী নিয়োগ দিতে হচ্ছে।

এ ব্যাপারে পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সায়েদুর রহমান ভূইয়া বলেন, আগামী ঈদের দিন পর্যন্ত মাদকদ্রব্যর বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। আর মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে থানার কোনো অফিসার অভিযুক্ত থাকার প্রমাণ পেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ad