পুঠিয়ায় ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ

rajshahi map
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: রাজশাহীর পুঠিয়ায় ভুল চিকিৎসায় সুমি বেগম (২০) নামের এক প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা ওই ক্লিনিকটিকে ঘিরে রেখেছেন।

রবিবার (২৯ এপ্রিল) বেলা ৩টার দিকে উপজেলার জনসেবা ক্লিনিকে এ ঘটনা ঘটে। সুমি বেগম উপজেলার ফুলবাড়ী গ্রামের সেলিম হোসেনের স্ত্রী।

সুমি বেগমের ভাই মিঠুন বলেন, আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আমার বোনের প্রসব বেদনা শুরু হলে পরিবারের লোকজন তাকে পুঠিয়া সদর এলাকায় অবস্থিত জনসেবা ক্লিনিকে ভর্তি করেন। সে সময় ওই ক্লিনিক মালিক বুলবুল আহমদ আমাদের জানান পানি স্বল্পতার অভাবে বাচ্চা ও গর্ভবতীর অবস্থা ভালো না। তাই তাড়াতাড়ি সিজার করতে হবে।

তিনি বলেন, ক্লিনিক মালিক কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই নিজে ডাক্তার সেজে আমার বোনকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যায়। পরে সিজারের মাধ্যমে আমার বোনের একটি কন্যা শিশুর জন্ম হয়। এরপর অপারেশন থিয়েটারেই আমার বোনের খিচুনি শুরু হয়।

তিনি বলেন, এমতাবস্থায় ক্লিনিক মালিক জরুরিভাবে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেয়। সাথে সাথে আমার বোনকে রামেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে সে মারা যায়।

ক্লিনিক মালিক বুলবুল আহমদের সঙ্গে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

তবে ক্লিনিকের ম্যানেজার রুপা বেগম বলেন, প্রসূতি মারা যাওয়ার পর থেকে মালিক পলাতক রয়েছে। কোন ডাক্তার সির্জার করেছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা আমাদের জানা নেই।

ঘটনার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও থানার উপ-পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ভুল চিকিৎসার কারণে প্রসূতি মারা গেছেন। এ ঘটনার পর প্রসূতির পরিবার ও স্থানীয় লোকজন ক্লিনিকটি ঘিরে রেখেছেন। খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি।

তবে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত প্রসূতির পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় কোনো অভিযোগ দেয়নি।

ad