পূর্বধলায় বখাটের ছুরিকাঘাতে স্কুলছাত্রী আহত

stabbing
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নেত্রকোনার পূর্বধলায় প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় বখাটের চুরিকাঘাতে সুরাইয়া আক্তার তন্নী (১৪) নামের এক ছাত্রী আহত হয়েছে।

সোমবার (২ জুলাই) রাতে তাকে পূর্বধলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এর আগে সন্ধ্যায় নিজ ঘরে লেখাপড়া করার সময় তন্নী ছুরিকাঘাতের শিকার হয়। তন্নী উপজেলার পাটরা দামপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী এবং পশ্চিম পাটরা গ্রামের আব্দুস সোবাহানের মেয়ে।

জানাগেছে, তন্নীকে বিদ্যালয়ে যাওয়ার আসার পথে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করতো একই গ্রামের আ. বারেকের ছেলে শাহীন মিয়া (১৯)। এতে তন্নী রাজি না হওয়ায় তাকে প্রাণনাশের ও ধর্ষণের হুমকি দেয় শাহীন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তন্নী জানায়, সন্ধ্যায় সে ঘরে পড়ালেখা করছিল। এ সময় তার মা পাশের রান্না ঘরে থাকায় শাহীন ও তার সহযোগী আল আমিনসহ তিনজন ঘরে ঢুকে তন্নীর মুখে গামছা দিয়ে বেঁধে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে শাহীন তার পেটে ছুরিকাঘাত করে।

তখন তন্নী ধারালো অস্ত্র ধরে ফেললে তার ডান হাতের চারটি আঙ্গুল কেটে যায় এবং তার চিৎকার শুনে পাশের ঘর থেকে তার মা দৌঁড়ে এলে বখাটেরা পালিয়ে যায়।

তন্নীর মা লিপি আক্তার ও বাবা আব্দুস সোবাহান বলেন, শাহীন ও আল আমিন এলাকায় বখাটে হিসেবে চিহ্নিত। আমরা এ ঘটনার দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তি চাই।

পূর্বধলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিল্লাল উদ্দিন বলেন, এ ব্যাপারে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ad