বাউফলে ইউপি ও উপজেলা চেয়ারম্যান দ্বন্দ্ব, উন্নয়ন কার্যক্রম স্থবির

jagoran- baufol upojela porishod
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের সঙ্গে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের দ্বন্দ্বের কারণে ৩ মাস ধরে মাসিক সভা হচ্ছে না। ফলে উন্নয়ন কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে।

ইতোমধ্যে ভাগ-বন্টনের হিসাব না মেলায় ফেরত চলে গেছে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) বরাদ্দকৃত ১ কোটি টাকা। বিষয়টি নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মজিবুর রহমানের সঙ্গে কয়েকটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরোধ সৃষ্টি হয়। উভয়পক্ষের মধ্যে সিদ্ধান্তের মিল না হওয়ায় ৩ মাস ধরে উপজেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে না।

নাজিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইব্রাহিম ফারুক অভিযোগ করে বলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মজিবুর রহমানের খাম খেয়ালীপনা এবং সমন্বয়হীনতার কারনেই বিগত ৩ মাস ধরে সভা হচ্ছে না। তার কারণেই ১ কোটি টাকা ফেরত চলে গেছে।

এসব অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বলেন, এমপি সাহেবের কারণে ২টি সভা হয়নি। তাই আমার কারণে সভা হচ্ছে না, এ কথা ভিত্তিহীন। কতিপয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা সঠিক সময়ে প্রকল্প জমা না দেয়ায় ফেরত চলে গেছে বরাদ্দকৃত টাকা।

বাউফল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিজুস চন্দ্র দে বলেন, আমি এ উপজেলায় যোগদান করার পর কোনো সভা হয়নি। সোমবার (১৭ সেপ্টেম্বর) মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হবে।

ad