বাউফলে বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরী নিয়োগ বন্ধ, ফেরত গেল বেতন-ভাতা

Bauphal
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর বাউফলে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪২ জন দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী নির্ধারিত সময়ে নিয়োগ না দেয়ায় ওই পদের বিপরীতে বরাদ্দকৃত প্রায় ২ কোটি টাকার ভাতা ও বোনাস ফেরত চলে গেছে। বিষয়টি নিয়ে নিয়োগ প্রত্যাশীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১৭ সালের ১২ জুন নিয়োগ-বাছাই কমিটির সভাপতি ও বাউফলের তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান ৪২ জন দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন। ওই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর ৪ শতাধিক চাকরি প্রত্যাশী আবেদন করেন। নিয়মানুযায়ী প্রার্থী বাছাই প্রক্রিয়ার জন্য কমিটিতে উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে একজন প্রতিনিধি চেয়ে আবেদন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। কিন্তু বাছাই কমিটিতে তিনি তার প্রতিনিধি না দিয়ে কালক্ষেপণ করেন। এরপর দীর্ঘদিনেও উপজেলা চেয়ারম্যান তার প্রতিনিধি না দেয়ায় প্রহরী নিয়োগ দেয়া যাচ্ছে না।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা বলেন, নিয়োগের জন্য ৪২ জন প্রার্থীর মধ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান তার পছন্দ অনুযায়ী ২১ জনকে নিয়োগ দিতে চেয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে নিয়োগ-বাছাই কমিটির সদস্যদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে এক নিয়োগ প্রত্যাশী বলেন, নিয়োগ না দেয়ায় ভাতা বাবদ বরাদ্দকৃত প্রতিমাসে প্রায় ৭ লাখ টাকা ফেরত যাচ্ছে।

বাউফলের উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা রিয়াজুল হক বলেন, ৪২টি পদে নিয়োগ না দেয়ায় সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়গুলোর কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে। তাছাড়া ইতিমধ্যে এদের ভাতা বাবদ ২ কোটি টাকা ফেরত চলে গেছে।

তবে হস্তক্ষেপের অভিযোগ অস্বীকার করে বাউফলের উপজেলা চেয়ারম্যান হাজী মজিবুর রহমান বলেন, নিয়োগ না হওয়ার বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ভালো বলতে পারবেন।

বাউফলের সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান বলেন, একাধিবার অবহিত করার পরও কমিটিতে উপজেলা চেয়ারম্যান তার প্রতিনিধি না দেয়ায় দপ্তরী কাম প্রহরী পদে নিয়োগ দেয়া যায়নি। বিষয়টি সমাধানের জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবের কাছে আবেদন করা হয়েছে। ওই আবেদনের কারণে উপজেলা চেয়ারম্যান তার উপর ক্ষুব্দ হয়েছেন বলেও দাবি করেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে বাউফলের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিজুস চন্দ্র দে বলেন, আমি সদ্য যোগদান করেছি। তবে অচিরেই দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগের বিষয়টি নিয়ে সভা আহ্বান করা হবে।

ad