বাউফলে বিদ্যালয় ভবন ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় পাঠদান চলছে মাঠে

Boufal, Risky School, 2
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের ১৫০নং সুলতানাবাদ-উত্তর নাজিরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় বাধ্য হয়েই দীর্ঘদিন থেকে খোলা আকাশের নিচে উন্মুক্ত মাঠে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করানো হচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ১৯৭৩ সালে প্রতিষ্ঠিত বিদ্যালয়টিতে বর্তমানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৮০ জন। ১৯৯৪ সালে এলজিইডির তত্ত্বাবধানে একটি ভবণ নির্মাণ করা হয়।

নির্মাণকালে নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহার ও সিডিউল অনুযায়ী কাজ না করায় কিছুদিনের মধ্যে বিদ্যালয় ভবনটি জড়াজীর্ণ হয়ে পড়ে। ভবনটির দেয়াল ও স্লাবের পলেস্তরা খসে পড়ে। ধসে পড়ার আশঙ্কায় সম্প্রতি বিমের নিচে লোহার পাইপ দিয়ে সাপোর্ট দেয় হয়। বর্ষা মৌসুম এলেই ছাদ চুইয়ে পানি পড়ে মেঝে তলিয়ে যায়।

এ অবস্থায় ২০১৭ সালের ১৬ জুলাই উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা পরিদর্শন শেষে ভবনটিতে পাঠদান না করার জন্য শিক্ষকদের নির্দেশ দেন। এরপর থেকে নিরুপায় হয়ে শিক্ষকরা খোলা মাঠে পাঠদান শুরু করেন।

শিক্ষার্থী সামিউল আলিম ও তাছলিমা জানায়, ক্লাসে এলেই মাথায় আতঙ্ক ভর করে। ভবন ধসে পড়ার ভয়ে আমাদের লেখাপড়া বিঘ্নিত হচ্ছে।

মালা আক্তার ও পপি নামের দুই অভিভাবক বলেন, দ্রুত এই বিদ্যালয়ে একটি নতুন ভবন নির্মাণের দাবি জানাই।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা রোকেয়া বেগম বলেন, শ্রেণিকক্ষে পাঠদান করার কোনো পরিবেশ নেই। একইসঙ্গে রয়েছে বেঞ্চ সংকট। এছাড়া, টয়লেট না থাকায় শিক্ষার্থীরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছে।

বাউফল উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা রিয়াজুল হক বলেন, একাধিকবার বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে যথাযথভাবে অবহিত করা হয়েছে।

ad