বাউফলে মাকে বিবস্ত্র করে নির্মম নির্যাতন করল ছেলে!

Bauphal Photo
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর বাউফলে ভরণ-পোষণ চাওয়ায় মাকে বিবস্ত্র করে নির্মমভাবে পিটিয়ে জখম ও জবাই করে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে ছেলে জালাল সর্দারের (৪২) বিরুদ্ধে।

শনিবার (৩০ জুন) বাউফল ইউনিয়নের পশ্চিম বিলবিলাস গ্রামে এ ঘটনা ঘটে ।

ছেলের হাতে নির্যাতনের শিকার মা জমিলা খাতুন জানান, স্বামী ইসমাইল সরদার যখন মারা যান তখন তার বড় ছেলে জালালের বয়স ছিল ১০ বছর এবং ছোট ছেলে আলালের বয়স ৭ বছর। এরপর অন্যের বাড়ি ঝিয়ের কাজ করে তিনি তার সন্তানদের লালন পালন করেন। ছেলেরা বিয়ে করে ঘর সংসার শুরু করার পর জমিলা খাতুনের কদর কমতে থাকে। জালাল সর্দার আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হলেও তিনি তার মাকে কখনো ভরণ পোষণ দিতেন না। এক পর্যায়ে ছোট ছেলে দরিদ্র আলালের কাছে আশ্রয় নেন তিনি।

তিনি জানান, শনিবার সকালে তিনি তার ছেলে জালালের কাছে ভরণ-পোষণ দেয়ার কথা বলতে গেলে জালাল ও তার স্ত্রী শারমিন উত্তেজিত হয়ে প্রথমে তাকে উপর্যুপরি পিটিয়ে জখম করে। এরপর জালাল তাকে ইট দিয়ে আঘাত করে মাথা ফাটিয়ে দেয়। এ সময়ে তার নাতি আমিনুল (২৪) এগিয়ে এলে তাকেও বেধড়ক পিটিয়ে জখম করে জালাল ও তার স্ত্রী। পরে বাড়ির আঙিনায় বিবস্ত্র করে ফেলে দা দিয়ে জবাই করার সময় প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে।

এ বিষয়ে বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি শুনেছি, এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ad