বোনারপাড়া রেলওয়ে জংশনে কোটি টাকার সম্পদ নষ্ট!

Jagoran- Boanarpara, railway junction,
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: গাইবান্ধার বোনারপাড়া রেলওয়ে জংশনের বিশাল এলাকায় বিগত ৩৫ বছর ধরে পরিত্যক্ত রয়েছে কোটি কোটি টাকার মূল্যবান সম্পদ। তত্বাবধান কিংবা সংরক্ষণ না হওয়ায় এসব সম্পদ মরিচা পড়ে দিন দিন মাটিতে মিশে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে রেলওয়ে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কোনো মাথা ব্যাথা নেই।

জানা যায়, বৃটিশ শাসনামলে গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার বোনারপাড়া রেলওয়ে স্থাপন হয়। উত্তরের ১৬ জেলার মানুষের রাজধানী ঢাকায় যাওয়ার জন্য একমাত্র রেলপথ ছিল বোনারপাড়ার অদূরে ফুলছড়ি রেল ফেরিঘাট।

বোনারপাড়া জংশন ষ্টেশন হওয়ার সুবাদে গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা গড়ে ওঠে এখানে। এসব স্থাপনার মধ্যে লোকোশেডের দক্ষিণে ইঞ্জিন সম্মুখমুখী করার জন্য একটি চক্র নির্মাণ করা হয়। যার মূল্য প্রায় ৫ কোটি টাকারও বেশি।

১৯৮২ সালের দিকে চক্রটির কার্যক্রম বন্ধ হওয়ায় তখন থেকেই পরিত্যক্ত হয়ে রয়েছে এটি। কলোনি এলাকার লোকজন চক্রটিতে এখন গোবর শুকানোর কাজে ব্যবহার করছে। এটির অর্ধেকেরও বেশি অংশের লোহার যন্ত্রাংশ চুরি হয়ে গেছে। বাকি অংশ মরিচা পড়ে দিন দিন মাটিতে মিশে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে।

এছাড়াও ১৯৯৪ সালে ফুলছড়ি রেলওয়ে ফেরিঘাট স্থানান্তরিত হয়ে বালাশিঘাটে যাওয়ার পর ভরতখালী রেলওয়ে রুটটি বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় ৭ কিলোমিটার রেলপথের লাইন, স্লিপার, দুটি রেল সেতু ও ভরতখালী ষ্টেশনের প্রায় ১০০ কোটি টাকার সম্পদ অবহেলায় নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। সংরক্ষণ না হওয়ায় দিন দিন চুরিও হচ্ছে এসব।

এ ব্যাপারে বোনারপাড়া রেলওয়ে জংশন পিডাব্লিউ অফিসের এসএসএই আকবর আলী জানান, ভরতখালী রেলপথ দেখার জন্য জনবল রয়েছে। এ রেলরুটটি চালু হলে আর পরিত্যক্ত থাকবে না।

ad