ভোলায় স্কুলছাত্রী অপহরণ: ৪ দিনেও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ

Abduction
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: ভোলার উত্তর চর ভেদুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী সারমিন বেগমকে অপহরণের চারদিন পেরিয়ে গেলেও তাকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

গত বুধবার (২৩ মে) জেলে বাবুলের ছেলে বখাটে সালামত তার কয়েক বন্ধুকে নিয়ে সারমিনকে স্কুলে যাওয়ার পথে তুলে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় সারমিনের পিতা মো. সিরাজ বাদী হয়ে থানায় অপহরণ মামলা করেছেন।

সিরাজ মিয়া জানান, বখাটে সালামত তার মেয়েকে স্কুলে আসার পথে প্রায়ই উত্যক্ত করতো। বিষয়টি সালামতের পিতা বাবুলকে জানানো হলেও তিনি কোন ব্যবস্থা নেননি। বুধবার সারমিন বাড়ি থেকে স্কুলে আসার পথে জোরপূর্বক তাকে তুলে নিয়ে যায় সালামত ও তার সহযোগীরা।

এ বিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক হাসান মিজানুর রহমান মিঠু জানান,  সালামত প্রায়ই সারমিনকে উত্যক্ত করতো। গত মঙ্গলবার এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে সালিশ হওয়ার কথা ছিল। স্থানীয় নেতারা সময় দিতে না পারায় ওই সালিশ হয়নি। পরের দিন সালামতসহ কয়েকজন সারমিনকে তুলে নিয়ে যায় বলে শুনেছেন।

ভোলা থানার ওসি মীর খায়রুল কবির জানান,  লিখিত অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনা তদন্তে যায়। মেয়েটিকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করেছে।

স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, অপহরণকারী সালামতের পরিবার ওই মেয়ের পরিবারের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছে। তবে ওই ছাত্রীর বয়স মাত্র ১২ বছর।

ad