রূপগঞ্জে ছাত্রীকে ছুরিকাঘাত, থানায় মামলা

ছুরিকাঘাতে দুই পুলিশ সদস্য আহত
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী বর্ষা আক্তার ফাহিমাকে শ্লীলতাহানি চেষ্টার সময় বাধা দেয়ার ছুরিকাঘাতের ঘটনায় বখাটে রাজু মিয়ার বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীর বাবা মামলা দায়ের করেছেন।

শুক্রবার (২৭ এপ্রিল) সকালে রূপগঞ্জ থানায় ফাহিমার বাবা নয়ন ভুঁইয়া এ মামলা দায়ের করেন।

এর আগে মঙ্গলবার (২৪ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উপজেলার তারাব এলাকায় শ্লীলতাহানি এবং ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। স্থানীয় লোকজন শিক্ষার্থীকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানান, ফাহিমা বাওয়ানী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। উপজেলার তারাবো উত্তরপাড়া এলাকার বখাটে রাজু মিয়া বেশকিছু দিন ধরেই তার মেয়েকে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে কুপ্রস্তাব দিত।

এমনকি বখাটে রাজু প্রায় সময়ই স্কুল শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এ ঘটনা শিক্ষার্থী তার বাবা নয়ন ভুঁইয়াকে জানালে তিনি বখাটে রাজুকে তার মেয়েকে উত্ত্যক্ত করতে নিষেধ করেন।

গত মঙ্গলবার স্কুল শিক্ষার্থীর ছোট বোনকে সাথে নিয়ে বান্ধবীর বাসায় যাওয়া পথে নোয়াপাড়া এলাকার প্লাস্টিক জুট মিলের পেছনের রাস্তায় পৌঁছালে বখাটে রাজু ওই শিক্ষার্থীকে পেছন দিক থেকে মুখ চেপে ধরে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে।

এ সময় ওই শিক্ষার্থী বখাটে রাজুকে বাধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রাজু মিয়া শিক্ষার্থীর পেটে ও হাতে ছুরি দিয়ে উপুর্যপুরি আঘাত করে। এ সময় শিক্ষার্থী মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তার ছোট বোনের ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজনের সহায়তায় ফাহিমাকে উদ্ধার করে মুমূর্ষ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় মামলা রুজু করা হয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব বখাটে রাজুকে গ্রেপ্তার করা হবে।

ad