রূপগঞ্জে বিদ্যালয়ের ৮ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

টাকা আত্মসাতে
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ব্রাক্ষ্মণখালী এলাকার জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ের গরুর হাটের ইজারার প্রায় ৮ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। স্কুলের অভিভাবক কমিটির সভাপতি এ কে এম রেজাউল করিম মাঞ্জু ও স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেনের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (১৬ মে) বিকালে স্কুলের টাকা আত্মসাতের ঘটনায় স্কুলের অভিভাবক ও স্থানীয় জনতা স্কুল সংলগ্ন বালুর মাঠে প্রতিবাদ সভা করেছে। এ সময় উত্তেজিত এলাকাবাসী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়ে ৭২ ঘন্টার আলটিমেটাল দিয়েছেন।

কৃষকলীগের সভাপতি আরাফাত আলীর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন দাউদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর মাষ্টার।

বক্তব্য রাখেন- থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক, সালাউদ্দিন মেম্বার, শাহজাহান ভূইয়া, অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, আকতারুজ্জামান কুলসুম প্রমুখ।

বর্তমানে ওই এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকোনো সময় সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

বিক্ষুব্ধ অভিভাবক ও স্থানীয় এলাকাবাসীরা জানান, জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ে গত কয়েক যুগ ধরে গরুর হাট বসিয়ে ইজারা নেয়া হয়। প্রতি সোমবার স্কুলের মাঠে এ হাট বসে। ইজারার টাকা স্কুলের উন্নয়নের কাজে ব্যয় করা হয়।

অথচ গত ১০ বছর ধরে স্কুলের অভিভাবক কমিটির সভাপতি এ কে এম রেজাউল করিম মাঞ্জু স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেনের যোগসাজশে ভুয়া বিল-ভাউচার বানিয়ে টাকা আত্মসাত করে আসছে। এছাড়া বছরের ৫২ সপ্তাহের মধ্যে ৩০ সপ্তাহের টাকা জমা দিয়ে নয়-ছয় করছে। এভাবে গত ১০ বছরে প্রায় ৮ কোটি টাকা আত্মসাত করেছে।

ad