লোহাগড়ায় এক রাতে পাঁচ বাড়িতে ডাকাতি

Narail map
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলায় একই রাতে পাঁচটি বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।  এ সময় ডাকাতদল নগদ টাকা ও স্বার্ণালংকারসহ মূল্যবান আসবাবপত্র লুট করে নিয়ে গেছে।

মঙ্গলবার (৮ মে) রাতে উপজেলার নোয়াগ্রামে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

ডাকাতির শিকার নোয়াগ্রামের জালাল শরীফের স্ত্রী রোকেয়া বেগম বলেন, মঙ্গলবার রাত ১টার দিকে বারান্দার গ্রিল ভাঙার শব্দ শুনে আমি ঘরের দরজা খুলে বের হই। এ সময় ৫ থেকে ৭ জন মুখোশধারী আমার বুকে বন্দুক এবং গলায় ছোড়া ধরে পরিবারের সবাইকে পাশের ঘরে নিয়ে বেঁধে রাখে। পরে তারা আলমারির চাবি নিয়ে ৪ ভরি সোনার গহনা, নগদ ৩৫ হাজার টাকা, দুইটি মুঠোফোন লুট করে নিয়ে যায়।

ইব্রাহিম শরীফের মা আমেনা বেগম বলেন, আমার ঘর থেকে আধা ভরি সোনার গহনা, ৫টি মুঠোফোন ও ওয়ালটন টিভি নিয়ে গেছে।

আরেক ভিকটিম আরিফ শরীফ বলেন, প্রতিবেশীদের চিৎকার শুনে ঘর থেকে বের হলে ১০ থেকে ১২ জনের মুখোশধারী ডাকাতদল আমাকে ঘিরে ফেলে মারধর করে। একজন বুকে অস্ত্র ঠেকিয়ে এবং আরেকজন গলায় ছোড়া ধরে ঘরে ঢুকে সব কিছু নিয়ে যায়।

আতাউর কাজীর স্ত্রী আনজিরা বেগম বলেন, আমার ঘর থেকে নগদ ২০ হাজার টাকা, কানের দুল, মুঠোফোন নিয়ে যায়। এছাড়া তারা আমাকে প্রতি মাসে ১০ হাজার করে চাঁদা দিতে বলে। তা না হলে খবর আছে বলে হুশিয়ারি দেয়।

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদশন করেছে। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে, নড়াইলের মাইজপাড়ায় গ্রামীণ ব্যাংকে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ইয়াসিন (২১) নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। সে মাইজপাড়ার ইয়াসিন কুটিমিয়া ঢালীর ছেলে ও ঢাকার মোহাম্মপুরের আলহাজ্ব মকবুল হোসেন ইউনিভার্সিটি এ্যান্ড কলেজের মার্কেটিং বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র।

ad