শিক্ষকের দ্বারা ধর্ষণ চেষ্টার শিকার স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

Mymensingh Trishal
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ত্রিশালে শিক্ষকের দ্বারা যৌন নির্যাতনের শিকার হয়ে সোহাগী (১৩) নামের এক ছাত্রী লোকলজ্জার ভয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্বহত্যা করেছে।

শনিবার (৫ মে) সকালে মক্তবে পড়তে গেলে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা করে মোবারক হোসেন (২৮) নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষক। পরে বাড়ি ফিরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্বহত্যা করে ওই কিশোরী।

এ ঘটনায় মাদ্রাসা শিক্ষক মোবারক হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ। সে উপজেলার বালিপাড়ার বাসিন্দা ও কাওরানবাড়ি ফূরকানিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক।

নিহত সোহাগী ত্রিশাল উপজেলার ধানীখোলা ইউনিয়নের বাসিন্দা। এ ঘটনায় নিহত সোহাগীর বাবা বাদী হয়ে ত্রিশাল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

ত্রিশাল থানা ওসি তদন্ত ফায়জুর রহমান জানান, সোহাগী সকালে বাড়ির পাশেই কাওরানবাড়ি ফূরকানিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক মোবারক হোসেনের কাছে মক্তব পড়তে যান। সকাল ৯টার দিকে মোবারক তাকে রুমে ডেকে নিয়ে যায়। এ সময় তাকে ধর্ষণ চেষ্টা করা হলে পাশে থাকা সেলিম নামের এক যুবক দেখে ফেলে।

তিনি জানান, পরে এলাকাবাসী গিয়ে সোহগীকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে। এর কিছুক্ষণ পরেই সোহাগী গলায় রশি দিয়ে ঘরের অড়ার সাথে ফাঁস দেয়। পরে পরিবারের সদস্যরা দরজা ভেঙে তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেলে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

এই কর্মকর্তা আরও জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আসামী মোবারক হোসেনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

ad