শৈলকুপায় ধর্ষকের হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় ভিকটিমের পরিবার

Shailakupa, rapist, threat,
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার বড় গাবলা গ্রামের একাধিক নারী ধর্ষক হাফিজ উদ্দিনের হুমকিতে এক ভিকটিমের পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।

জানা যায়, গাবলা গ্রামের বিলাত আলীর ছেলে হাফিজ উদ্দিন একই গ্রামের প্রতিবেশী স্কুল পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে দীর্ঘদিন ধরে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি ওই শিক্ষার্থী পার্শ্ববর্তী হাফিজের বাড়িতে গেলে সুকৌশলে ডেকে ঘরের ভেতর নিয়ে যায় এবং সেখানে তার হাত-পা বেঁধে ভয়-ভীতি দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে একাধিকবার বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন সময় তাকে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে ধর্ষণ করে হাফিজ।

এরপর ধর্ষণের শিকার ওই মেয়েকে তার মা হরিনাকুন্ডু উপজেলার একটি গ্রামে বিয়ে দেন। বিয়ের পর থেকে ধর্ষক হাফিজ মেয়েটির স্বামীর মোবাইলে তার ধর্ষণের বর্ননা দেয় এবং ঘর-সংসার ভেঙে দেয়ার হুমকি দেয়।

এক পর্যায়ে মেয়েটি তার বাবার বাড়িতে চলে আসে। বাবার বাড়িতে আসার পরও রক্ষা পায়নি মেয়েটি। সর্বশেষ গত ৬ মে সন্ধ্যায় তাকে একা পেয়ে পুনরায় ধর্ষণ করে হাফিজ। এ ঘটনায় ভিকটিমের মা নিরুপায় হয়ে গত ১৬ মে শৈলকুপা থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন।

এ ঘটনার পর থেকে ধর্ষক ও তার পরিবারের লোকজন তাদের মামলা তুলে নিতে চাপ সৃষ্টি করে চলেছে।

ভিকটিমের পরিবারের অভিযোগ, ধর্ষকের এক আত্মীয় পরিচয়দানকারী পুলিশ বিভাগে কর্মরত এসআই বিভিন্নভাবে মামলা তুলে নেয়ার জন্য ভয়-ভীতি ও হুমকি-ধামকি দিচ্ছে।

এর ফলে ফলে ধর্ষণের শিকার ওই নারীর অসহায় পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছে। ওই পরিবার তাদের নিরাপত্তা চেয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

ad