সুনামগঞ্জে সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১৫

সুনামগঞ্জ
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে জমিতে গরুর ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংর্ঘষে মোহাম্মদ নুরুল হক (৫০) নামের একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন দুপক্ষের আরও ১৫ জন। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

রবিবার (৮ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের কুজাবপুর নতুন পাড়া গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে। তারা হলো- জগন্নাথপুর উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের কুজাবপুর গ্রামের সুভাষ করের স্ত্রী শিবলী রানী কর (৩৫),পাখি করের স্ত্রী সীমা কর (৩২) ও বুদা করের ছেলে করুনা কর (২৭)।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, কুজাবপুর নতুন পাড়া গ্রামের নুরুল হকের গ্রাম সংলগ্ন হাওরের জমিতে আধা পাকা ধান একেই গ্রামের বৈষ্ণব করের গরু খেয়ে ফেলে। এ নিয়ে বৈষ্ণব ও নুরুল হকের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

এক পর্যায়ে দুপক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে দুপক্ষের ১৫ জন আহত হয়। এ সময় বৈষ্ণব করের লোকজনের হাতে নুরুল হককে এলোপাতাড়ি মারধর করার সময় ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন।

খবর পেয়ে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং লাশ উদ্ধার করে সুনামগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করে।

ঘটনাস্থল পরির্দশনকারী ওসি আশরাফুল ইসলাম (তদন্ত) জানান,গরু ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করেই সংর্ঘষ হয়। মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। জড়িত বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এলাকার পরিবেশ এখন শান্ত রয়েছে।

ad