হরিণাকুন্ডুতে গৃহবধূকে বাথরুমে ধর্ষণ, ধর্ষক পলাতক

rape 3
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলার বাকচুয়া গ্রামে এক গৃহবধূকে বাথরুমে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় হরিণাকুন্ডু থাকায় একটি মামলা দায়ের করেছেন নির্যাতিতা। অভিযুক্ত ধর্ষক মোশাররফ হোসেন বর্তমানে পলাতক রয়েছে।

শুক্রবার (২ মার্চ) রাতে নির্যাতিতা গৃহবধূ হরিণাকুন্ডু থানায় একটি মামলা দায়ের করেন (মামলা নং-১, তারিখ-০২/০৩/২০১৮ ইং)।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার দুপুরে বাকচুয়া গ্রামের নিজ বাড়ির বাথরুমে গোসল করছিল ওই গৃহবধূ। এ সময় প্রতিবেশী মোশাররফ হোসেন বাথরুমে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষক মোশাররফ হোসেন বাকচুয়া গ্রামের মানোয়ার হোসেনের ছেলে।

হরিণাকুন্ডু থানার ওসি কে এম শওকত হোসেন জানান, ধর্ষণের খবর পেয়ে নির্যাতিতাকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়। মধ্যরাতে তিনি বাদী হয়ে এজাহার জমা দিলে তা গ্রহণ করা হয়েছে। শনিবার তাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। ধর্ষক মোশাররফ হোসেনকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

এদিকে, হরিণাকুন্ডু উপজেলার সাবেক বিন্নি গ্রামের দশম শ্রেণির স্কুলছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হলেও পুলিশ ৩৭ দিনেও চার ধর্ষককে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। গত ২৫ জানুয়ারি মধ্যরাতে ঘরের দরজা ভেঙে একই গ্রামের নবিছদ্দির ছেলে মিল্টন, ঝান্টুর ছেলে মিন্টু, আনিছুর রহমানের ছেলে সেলিম ও ইমরুলের ছেলে রাজন ওই ছাত্রীকে পাক্রমে ধর্ষন করে।

হরিণাকুন্ডু থানায় মামলা হলেও ধর্ষকদের পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তবে পুলিশ আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানানমামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান।

ad