হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেই চিকিৎসক, মৃত্যু রোগীর!

Hospital
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নরসিংদী হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কোনো চিকিৎসক না থাকায় চিকিৎসা না পেয়ে জহুরা খাতুন (৫৫) নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার (১৪ মে) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটে। নিহত জহুরা খাতুন শহরের ব্রাক্ষনপাড়া এলাকার আলাউদ্দিন আলীর স্ত্রী।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, জহুরা খাতুন দীর্ঘদিন যাবত শ্বাসকষ্ট রোগে ভুগছিলেন। সকালে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তাকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু দীর্ঘ প্রায় এক ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কোনো চিকিৎসা পাননি জহুরা। এরপর সাড়ে ৮টার দিকে মারা যান জহুরা।

একটি সূত্র জানায়, হাসপতালের জরুরি বিভাগে ২৪ ঘন্টা সেবা দেয়ার কথা থাকলেও জহুরাকে যখন হাসপাতালে আনা হয় তখন সেখানে কোনো চিকিৎসকই ছিলেন না।

নিহতের ছেলে আতিকুল ইসলাম বলেন, আমার মায়ের মৃত্যুর জন্য চিকিৎসকরাই দায়ী। তারা যদি সঠিকভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করত আজকে আমার মা বেঁচে থাকত। তাদের গাফিলতির কারণেই আমার মা মারা গেল।

নরসিংদী সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. আমিরুল ইসলাম শামীম বলেন, রোগীটি এমআই রোগে আক্রান্ত ছিল। হাসপাতালে আনার সাথে সাথেই সে মারা যায়।

জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক না থাকার বিষয়ে তিনি বলেন, বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখবো। আর তা প্রমাণিত হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ad