ফরিদপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১১

ফরিদপুরে সেতুর রেলিং ভেঙে বাস খাদে পড়ে ও বাস-অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে ১১ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ১৯ জন।

শনিবার দুপুরে এউ দুই দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, দুপুর ২টার দিকে ফরিদপুর সদর উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ধুলদী নামক স্থানে ব্রিজের রেলিং ভেঙে যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে আটজন নিহত হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ১৮ জন।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম নাসিম জানান, ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জগামী কমফোর্ট লাইন পরিবহনের একটি বাস উপজেলার ধুলদী নামক স্থানে ব্রিজের ওপর একটি মোটরসাইকেল অতিক্রম করতে গেলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেলটিসহ খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেল আরোহীসহ ছয়জন মারা যান এবং ২০ জন আহত হন।

ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সিনিয়র স্টেশন অফিসার নুরুল আলম দুলাল জানান, ঘটনাস্থলেই ছয়জনের মৃত্যু হয়। আহতদের উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে আরও দুজনের মৃত্যু হয়। নিহতদের মধ্যে তিনজন নারী এবং পাঁচজন পুরুষ।

অন্যদিকে, দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার তালমা মোড়ে একটি অটোরিক্সা ও লোকাল বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এই ঘটনায় অটোতে থাকা মা-ছেলেসহ তিনজন নিহত ও একজন আহত হন।

নগরকান্দা থানার এসআই মো. আব্দুল গফ্ফার জানান, লাশের সুরতহালের জন্য ভাঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের কাছে মৃতদেহগুলো হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘাতক বাসটিকে জব্দ করা হলেও এর ড্রাইভার পালিয়ে গেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন :