এবার আ.লীগ নেতার কর্মচারীর সিন্দুকে মিলল ২ কোটি টাকা

রাজধানীর গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এনামুল হকের এক কর্মচারীর বাসায় অভিযান চালিয়ে সিন্দুকে রাখা দুই কোটি টাকা উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-র‌্যাব।

মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর নারিন্দার লালমোহন সাহা স্ট্রিটে এনামুল হকের কর্মচারী আবুল কালামের বাসায় এই সিন্দুকটি পাওয়া যায়।

এর আগে ক্যাসিনো ও অবৈধ জুয়ার বিরুদ্ধে চলমান অভিযানের অংশ হিসেবে রাজধানীর গেন্ডারিয়ায় এনামুলসহ দুই আওয়ামী লীগ নেতার বাসায় র‌্যাব অভিযান চালায়।

র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল সফি উল্লাহ বুলবুল সাংবাদিকদের বলেন, ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের ক্যাসিনো থেকে পাঁচটি সিন্দুক সরানো হয়েছিল। এর মধ্যে বানিয়ানগর মুরগিটোলায় গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের নেতা এনামুল হক ও তার ভাই রুপন ভূঁইয়ার বাসায় তিনটি পাওয়া গেছে ।

তিনি জানান, পরে লালমোহন সাহা স্ট্রিটে এনামুল হকের কর্মচারী আবুল কালামের বাসায় একটি সিন্দুক পাওয়া যায়। সেটি ভাঙার পর পাওয়া গেছে দুই কোটি টাকা। ওই বাসা থেকে একটি পিস্তলও উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

এছাড়া শরৎগুপ্ত রোডে এনামুল হকের বন্ধু হারুন-অর-রশিদের বাসায় পাওয়া গেছে পঞ্চম সিন্দুকটি। সেখানে আরও অন্তত দুই কোটি টাকা পাওয়া গেছে বলে র‌্যাব জানিয়েছে।

র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক আরও জানান, ঢাকায় এনামুল ও রুপনদের ১৫টি বাড়ি রয়েছে। ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের শেয়ার হোল্ডার এনামুল ক্লাবের টাকা এনে বাসায় রাখতেন। কিন্তু বিপুল পরিমাণ টাকা রাখার জায়গাও হতো না। তাই টাকা দিয়ে তিনি স্বর্ণ কিনে রাখতেন।

এদিকে র‌্যাব জানিয়েছে, এনামুল হক এক সপ্তাহ আগে থাইল্যান্ড চলে গেছেন এবং তার ভাই গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রুপন ভূঁইয়া পলাতক। র‌্যাব তাকেও খুঁজছে।

এর আগে এনামুল ও রুপনের বাসায় অভিযান চালিয়ে ১ কোটি ৫ লাখ নগদ টাকা, আট কেজি স্বর্ণালংকার, একটি বিদেশি শটগান, দুটি স্নাইপার রাইফেল এবং দুটি রিভলবার উদ্ধার করে র‌্যাব।

মন্তব্য লিখুন :