আল জাজিরার সাংবাদিক শিরিন হত্যার ঘটনা কাপুরোষোচিত

আল জাজিরার সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহকে গুলি করে নৃশংসভাবে হত্যা করার ঘটনা কাপুরোষোচিত বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।


বৃহস্পতিবার (১২ মে) ইসরাইলি বাহিনী কর্তৃক আল জাজিরার সাংবাদিককে গুলি করে হত্যার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ মন্তব্য করেন তিনি।


তিনি বলেন, ফিলিস্তিনের অধিকৃত পশ্চিম তীরে ইসরাইলি বাহিনী কর্তৃক আল জাজিরার সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহকে গুলি করে নৃশংসভাবে হত্যা করার ঘটনা শুধু অমানবিকই নয়, এটি কাপুরোষোচিত। এটি ইসরাইলি বাহিনীর ধারাবাহিক নির্দয় বর্বরতার আরেকটি নিকৃষ্ট দৃষ্টান্ত।


মির্জা ফখরুল বলেন, শিরিন আবু আকলেহ দায়িত্ব পালন অবস্থায় তাকে মাথায় গুলি করে পৈশাচিকভাবে হত্যা বিশ্ব ইতিহাসে ইসরাইলি বাহিনীর একটি কালো অধ্যায় হিসেবে যুক্ত হবে। এহেন সহিংস মরণঘাতি কর্মকাণ্ড চরম মানবতাবিরোধী কাজ। ইসরাইলি বাহিনীর দ্বারা আল জাজিরার সাংবাদিককে হত্যায় আমি তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাচ্ছি।


মানবতার শত্রুদের দ্বারাই কেবলমাত্র এধরণের রক্ত ঝরানো সম্ভব মন্তব্য করে তিনি বলেন, স্বাধীনচেতা, নিরস্ত্র ও সত্যানুসন্ধানী সাংবাদিকরা দায়িত্ব পালনকালে যদি একের পর এক হত্যাকান্ডের শিকার হয় তাহলে বিশ্ব সভ্যতা আদিম অন্ধকারে নিমজ্জিত হবে। অযৌক্তিক, দখলদার পেশী শক্তির জয়জয়কারে ভরে উঠবে বিশ্ব সমাজ। আধিপত্যবাদী শক্তি স্বাধীনতা, গণতন্ত্রে বিশ্বাসী মানুষদের নতি স্বীকারে করাতে বেপরোয়া হয়ে উঠবে।


শিরিন আবু আকলেহকে গুলি করে হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদকে চূড়ান্তভাবে রুখে দিতে না পারলে মানবতা ও মানবজাতি যে চরম অস্তিত্ব সংকটে পড়বে তাতে কোন সন্দেহ নেই।


শিরিন আবু আকলেহেরর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে তার শোক সন্তপ্ত পরিবার ও পরিজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান ফখরুল।