সাইফুল ইসলাম মাহামুদ প্রয়াণে স্মরণ শ্রদ্ধা

নাট্যজন সাইফুল ইসলাম মাহামুদের বেড়ে ওঠা পুরানা পল্টনে। বীর মুক্তিযোদ্ধা ও গুনী অভিনেতা রাইসুল ইসলাম আসাদের অনুজ প্রতীম ছিলেন তিনি। আসাদ ভাইয়ের হাত ধরেই দেশের শীর্ষ স্থানীয় নাট্যদল ঢাকা থিয়েটারের হয়ে তাঁর নাট্যযাত্রা শুরু।

তিনি বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটার, সময় নাট্যদলের প্রতিষ্ঠাকালিন সদস্য ছিলেন পরবর্তীতে মহাকাল নাট্য সম্প্রদায় গড়ার অন্যতম কারিগর ছিলেন এবং এক পর্যায়ে ঢাকা থিয়েটার ছেড়ে মহাকাল নাট্য সম্প্রদায় নিয়ে ব্যস্হ হয়ে উঠেন।

তিনি বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের এসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারী জেনারেলসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট এর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হিসেবে দীর্ঘ সময় নানা দায়িত্ব পালন করেন।
১৯৯০ সাল পর্যন্ত পথনাটক চর্চার যে গতিময়তা ছিল সামরিক স্বৈরশাসকের পদত্যাগের পর তা কিছুটা হোটচ খেলে সাইফুল ইসলাম মাহামুদসহ কয়েকজন নাট্যকর্মীর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় নতুন করে ঘুরে দাড়াতে সক্ষম হয়েছিল পথনাটক আন্দোলন। তিনি পথনাটক পরিষদ এর প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক ছিলেন এবং ১৯৯৯ সালের ২০ নভেম্বর পর্যন্ত আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে ছিলেন। পথনাটক পরিষদের প্রথম কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি ছিলেন।

তিনি নাট্যাঙ্গনে অকুতোভয় নিবেদিত হওয়া সত্বেও তাঁর নিজের গড়া নাট্য সংগঠন মহাকাল এর সাথে মতদৈততা তৈরি হলে নতুন বাস্তবতার মুখোমুখি হন। পরবর্তীতে টেলিভিশন মাধ্যমে অভিনয় ও নাট্য নির্মাণে মনোযোগী হন। এই অবস্থায় হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়েন।
এই দুরারোগ্য মরণব্যাধিতে দীর্ঘ সময়ের জন্য শয্যাশায়ী হয়ে নিজ বাসা,হাসপাতাল অথবা সিআরপিতে জীবন মৃত্যুর লড়াই করে আজ ভোর ৩ টায় মৃত্যু বরণ করেন।
তাঁর মৃত্যুতে সহকর্মীরা শোকাভিভূত, তাঁর স্মৃতির উদ্দেশ্যে গভীর শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন। উনার বিদেহী আত্মার চিরশান্তি কামনা করি। তাঁর দীর্ঘ নাট্যযাত্রা নাট্যোনন্দোলনে তাঁর ভুমিকা অনস্বীকার্য।

লেখক: মিজানুর রহমান