বাজারে নতুন ৩ আইফোন, জেনে নিন স্পেসিফিকেশন ও দাম

চলে এল অ্যাপলের নতুন আইফোন। বুধবার ক্যালিফোর্নিয়াতে অ্যাপল সংস্থার পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হল নতুন তিনটি মডেলের নাম। যদিও বাংলাদেশিদের এই ফোনগুলি পেতে অপেক্ষা করতে হবে আরও কিছুদিন।

১০ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় যুক্তরাষ্ট্রের কুপারটিনোর স্টিভ জব থিয়েটারে আইফোন ১১, ১১ প্রো ও ১১ প্রো ম্যাক্স উন্মোচন করেছে অ্যাপল। নতুন আইফোন ঘিরে আগে যে উন্মাদনা থাকত, এবার ততটা দেখা যায়নি। নতুনত্ব হিসেবে অ্যাপল এবার আইফোনের ক্যামেরাকে বেশি প্রাধান্য দিয়েছে। এ ছাড়া এ১৩ বায়োনিক চিপসেট এবং উন্নত গ্রাফিকসের কথা বলেছে। তবে গ্রাহকের কথা মাথায় রেখে নতুন আইফোনের ক্ষেত্রে দাম বাড়ায়নি তারা।

দেখে নেওয়া যাক এই মডেলগুলি কী কী এবং কোথায় আলাদা বাকি মডেলদের থেকে।

গত বছর অ্যাপলের আনা আইফোন এক্সআরের পরের ভার্সন হিসেবে দেখা হচ্ছে আইফোন ১১-কে। নতুন এই ফোনে থাকছে ডুয়াল ক্যামেরা সেট আপ স্কোয়ার শেপে। সঙ্গে থাকবে দু’টি ১২ মেগাপিক্সেল সেন্সর একটা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল এবং আরেকটি আলট্রা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল।

এর সঙ্গে থাকবে রাতের অন্ধকারেও ভাল ছবি তোলার সুযোগ। আইফোন ১১-এর স্ক্রিনের সাইজ যদিও এক্সআরের মতোই ৬.১ ইঞ্চি থাকছে। আপগ্রেড হচ্ছে প্রসেসর। এ১৩ বাওনিক চিপসেট থাকছে আইফোন ১১-এ। যা বাড়িয়ে দেবে সিপিইউ এবং জিপিইউ-র পারফরম্যান্স।

আইফোন ১১ প্রো মডেলটি আইফোন এক্সএসের পরের মডেল। এতে থাকছে তিনটি ক্যামেরা। প্রত্যেকটি ১২মেগাপিক্সেল সেন্সরের। ৪কে রেজলিউশনে ৬০ফ্রেম প্রতি সেকেন্ডে ছবি তোলার ক্ষমতা রাখে এই ক্যামেরাগুলি। অন্ধকারেও ছবি তুলতে পারবে ক্যামেরাগুলি।

৫.৮ ইঞ্চির অর্গানিক এলইডি ডিসপ্লে থাকছে আইফোন ১১ প্রো-তে। এতেও থাকছে এ১৩ বাওনিক চিপসেট। আইফোন এক্সএসের থেকে চার ঘণ্টা বেশি সময় ধরে কাজ করবে এর ব্যাটারি বলে জানিয়েছে অ্যাপল।

আরেকটি মডেল হচ্ছে আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স। আইফোন এক্সএস ম্যাক্সের পরের মডেল এটি। আইফোন ১১ প্রো-এর মতোই এতে থাকছে তিনটি ক্যামেরা এবং ১২ মেগাপিক্সেল সেন্সর। আইফোন এক্সএস ম্যাক্সের থেকে এর ব্যাটারি পাঁচ ঘণ্টা বেশি চলবে বলে জানিয়েছে অ্যাপল। আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্সে থাকছে ৬.৫ ইঞ্চি স্ক্রিন।

আইফোন ১১–এর দাম শুরু ৬৯৯ মার্কিন ডলার থেকে। ১১ প্রোর দাম ৯৯৯ মার্কিন ডলার। আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স পাওয়া যাবে ১ হাজার ৯৯ ডলারে।

মন্তব্য লিখুন :