ফোর-জি সেবা পেতে জরুরি ৩ তথ্য

4-G
ad

জাগরণ ডেস্ক: গত ১৯ ফেব্রুয়ারি মোবাইল প্রযুক্তির চতুর্থ প্রজন্মে (ফোর-জি) পা রেখেছে বাংলাদেশ। দেশে ফোরজি সেবা চালু হলেও মোবাইল ফোন গ্রাহকদের সবাই ব্যবহার করতে পারছেন না। মূলত তিনটি তথ্য জানা না থাকায় এই সমস্যা দেখা দিচ্ছে।

তথ্য তিনটি হলো- (১) সিম ফোর-জি কিনা, (২) মোবাইল সেট ফোর-জি কিনা, (৩) ব্যবহারকারী যে এলাকায় থাকেন, সেই এলাকা এখনও ফোরজি কাভারেজের আওতায় এসেছে কিনা।

মোবাইল অপারেটররা জানিয়েছে, সিম ও মোবাইলফোন সেট ফোর-জি সাপোর্টেড কিন্তু গ্রাহক যে এলাকায় থাকেন সেই এলাকা হয়তো এখনও ফোর-জি কাভারেজের মধ্যে আসেনি। ফলে চেষ্টা করেও ফোর-জি পাওয়া যাবে না।

এক্ষেত্রে, গ্রাহক যে এলাকায় আছেন সেই এলাকায় ফোর-জি চালু হয়েছে কিনা তা জানার জন্য তিনি গ্রাহকদের সংশ্লিষ্ট অপারেটরের কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে যেতে পারেন।

গ্রাহকের সিম ও মোবাইলফোন সেটটি ফোর-জি কিনা তা জানার ব্যবস্থা মোবাইলফোনেই রয়েছে। গ্রামীণফোন ব্যবহারকারীরা মোবাইলের কিপ্যাড অথবা ডায়াল অপশনে গিয়ে *১২১*৩২৩২# লিখে ডায়াল বাটন চাপলে ফিরতি মেসেজে জানতে পারবেন সিমটি ফোর-জি কিনা। আর সেটটি ফোর-জি কিনা তা সেটিংসে গিয়ে বা কনফিগারেশন দেখে জানতে পারবেন।

রবি গ্রাহকরা মোবাইলের কিপ্যাড অথবা ডায়াল অপশনে গিয়ে *১২৩*৪৪# লিখে ডায়াল বাটন চাপলে ফিরতি এসএমএস-এ জানিয়ে দেয়া হচ্ছে ব্যবহারকারীর সিম ও সেটটি ফোর-জি কিনা। এয়ারটেল গ্রাহকরাও একইভাবে জানতে পারবেন সিম ও সেটের তথ্য।

বাংলালিংকের গ্রাহকরা মেসেজ অপশনে গিয়ে ইংরেজিতে ফোর-জি লিখে ৫০০০ নম্বরে এসএমএস করলে ফিরতি এসএমএস-এ জানতে পারবেন সিমটি ফোর-জি কিনা।

এদিকে, আপাতত আইফোন ব্যবহারকারীরা তাদের মোবাইল সেটে আপাতত ফোর-জি ব্যবহার করতে পারবেন না। কারণ আইফোনে ফোরজি চালু হতে আরও এক মাস লেগে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশে ব্যবহৃত আইফোনগুলোতে ফোর-জি লক থাকায় গ্রাহকরা তা বর্তমানে ব্যবহার করতে পারছেন না।

ad