৭ মে উৎক্ষেপণ হচ্ছে না ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট- ১’

ad

জাগরণ ডেস্ক: অপেক্ষার প্রহর যেন কিছুতেই শেষ হচ্ছে না। একের পর এক দিনক্ষণ ঠিক করেও বারবার দিন পরিবর্তনের পর সর্বশেষ আগামী যুক্তরাষ্ট্র সময় ৭ মে সকাল ৮টায় উৎক্ষেপণের তারিখ থাকলেও আবারও পিছিয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট- ১’ এর উৎক্ষেপণ।

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জানিয়েছেন, দিনক্ষণ কিছুই বলা যাচ্ছে না, টেকনিক্যাল কারণে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ৭ মে উৎক্ষেপণ সম্ভব হবে না।

স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণকারী প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্স শুক্রবার সর্বশেষ ‘টেস্ট অ্যানালাইসিস’ চালাবে। ওই প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে নতুন দিনক্ষণ ঠিক করবে যুক্তরাষ্ট্রের বেসরকারি মহাকাশ অনুসন্ধান ও প্রযুক্তি কোম্পানি। এই পরীক্ষাটির পর সেটার তথ্য বিশ্লেষণ করতে আরও ৪ দিন সময় লাগবে।

উল্লেখ্য, নিজস্ব স্যাটেলাইটের অধিকারী বিশ্বের ৫৭তম দেশ হিসাবে বাংলাদেশের আত্মপ্রকাশ ঘটবে। এছাড়া এই স্যাটেলাইট স্থাপনের মাধ্যমে বাংলাদেশের যেমন নির্ভরতা কমবে অন্য দেশের ওপর, তেমনি দেশের অভ্যন্তরীণ টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন আসবে।

বিশ্বের অন্যতম খ্যাতনামা স্যাটেলাইট নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের থেলেস এলেনিয়া স্পেস বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটটি নির্মাণ করেছে। এটি তৈরির জন্য ২০১৫ সালের ১১ নভেম্বর বিটিআরসির সঙ্গে টার্ন কি পদ্ধতি কোম্পানিটির চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এই প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ২ হাজার ৯০২ কোটি টাকা।

সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে এক হাজার ৫৪৪ কোটি টাকা এবং অবশিষ্ট এক হাজার ৩৫৮ কোটি টাকা বিডার্স ফাইনান্সিং-এর মাধ্যমে ব্যয় সংকুলান হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট নির্মাণ কাজ শেষ হয় ২০১৭ সালের অক্টোবরে। এর পর গত ডিসেম্বরে এর সার্বিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষ করে ওড়ার উপযোগী ঘোষণা করা হয়।

এরইমধ্যে ১৬ ডিসেম্বর বৈরী আবহাওয়া এবং আরও কিছু যুক্তিযুক্ত বাস্তব পরিস্থিতি বিবেচনায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের তারিখ পিছিয়ে যায়। পরে তা উৎক্ষেপণের জন্য ৪ মে নতুন তারিখ নির্ধারিত করা হয়েছিল। যদিও আজ জানা গেল ৪ মে তা উৎক্ষেপণ না হয়ে আমামি ৭ মে হতে পারে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাও হচ্ছে না।

ad