এবার বিশ্বকাপে দেখা যাবে না যে তারকাদের

ad

স্পোর্টস ডেস্ক: রাশিয়া বিশ্বকাপের দিন গনণা শুরু হয়ে গেছে। আর মাত্র ৩৫ দিন পরেই শুরু হয়ে যাবে ফুটবলের এই মহাযজ্ঞ। তবে এবার বিশ্বকাপে দেখা যাবে না গত বিশ্বকাপ খেলা অনেক তারকাকে। তাদের মধ্যে কেউ আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে বিদায় নিয়েছে, অনেকে আবার ইনজুরিতে পড়েছেন, আবার কেউ কেউ ফর্মহীনতার কারণে বাদ পড়েছেন দল থেকে।

তাহলে দেখে নেওয়া যাক কোন তারকাদের এবার বিশ্বকাপে দেখা যাচ্ছে না:

মিরোস্লাভ ক্লোসা: বিশ্বকাপ ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা জার্মানির এই তরকা। গতবার জার্মানিকে কাপ জেতানোতে বিশেষ ভূমিকা রাখেন তিনি। তবে চারটি বিশ্বকাপ খেলা এই তারকাকে এবার আর মাঠ মাতাতে দেখা যাবে না। কারণ তিনি আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর নিয়েছেন।

ড্যানিয়েল ডি রসি: ইতালির মাঝমাঠের অণ্যতম কাণ্ডারি এই তারকা। সর্বশেষ তিন বিশ্বকাপে তার ফারফরমেন্স ছিল দারুণ। তবে এবার আর বিশ্বকাপে তার দেখা মিলবে না। কারণ ইতালি যে বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি।

জাবি হার্নান্দেজ: ২০১০ বিশবকাপে স্পেনকে শিরোপা জেতাতে তার ভূমিকা ছিল সবচেয়ে বেশি। তবে বয়সের কারণে বছর দুয়েক আগে আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় জানিয়েছেন তিনি। তাই এবার রাশিয়া বিশ্বকাপে তাকে আর দেখা যাচ্ছে না।

অরিয়েন রোবেন: স্নাইডারের সাথে জুটি বেধে নেদারল্যান্ডসকে ২০১০ বিশ্বকাপের ফাইনালে তুলেছিলেন রোবেন। তবে স্পেনের সাথে হেরে শিরোপা হাতছাড়া হয় তাদের। এরপর গত বিশ্বকাপে তার হাত ধরেই সেমি-ফাইনালে ওঠে ডাচরা। তবে সেবার আর্জেন্টিনার সাথে হেরে বিদায় নিতে হয় তাদের। তবে এবার বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি দলটি।

নানি: গত দুই বিশ্বকাপে পতুগালের হয়ে মাঠ মাতিয়েছেন মাঝ মাঠের এই তারকা। তবে ফর্মহীনতার কারণে এখন রয়েছেন দলের বাইরে। তাই তাকে এ বিশ্বকাপে দেখার আর সুযোগ নেই।

জিয়াইনলুজি বুফন: বিশ্বের অন্যতম সেরা গোলকিপার বলা হয়ে থাকে তাকে। ইতালির গোলপোষ্টটা সামলেছেন তিনি গত তিন বিশ্বকাপে। তবে ইতালি এবার বিশ্বকাপের টিকিট না পাওয়ায় গ্লাভস হাতে আর দেখা যাবে না এই তারকাকে।

ইকার ক্যাসিয়াস: তার নেতৃত্বেই ২০১০ বিশ্বকাপ জিতেছিল স্পেন। হয়েছিলেন সেরা গোলকিপারও। এরপর ১৪ বিশ্বকাপে তার দল বাদ পড়ে যায় প্রথম রাউন্ড থেকেই। বছর দুয়েক পরেই অবসরে চলে যান এই তারকা। তাই এবার আর তাকে বিশ্বকাপে দেখা যাচ্ছে না।

করিম বেনজেমা: গত দুই বিশ্বকাপে ফ্রান্সের হয়ে মাঠ মাতিয়েছেন বেনজেমা। তবে ২০১৫ সালে শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে তাকে দল থেকে বাদ দেয় দেশটির ফুটবল সংস্থা। এরপর গত তিন বছরে আর তাকে দলে দেখা যায়নি। তাই তাকে এবার বিশ্বকাপে দেখার সম্বাবনা আর নেই।

অস্কার: গত বিশ্বকাপের অন্যতম তরুণ তারকা ছিলেন অস্কার। ব্রাজিলকে সেমি-ফাইনালে উঠাতেও রেখেছিলেন বড় ভূমিকা। তবে গত প্রায় দেড় বছর ধরে জাতীয় দলে জায়গা মিলছে না তার। বিশ্বকাপ স্কোয়াডেও তার জায়গা পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম।

ফার্নান্দো তোরেস: স্পেনের সর্বকালের সেরা স্ট্রাইকারদের একজন তোরেস। খেলেছেন সর্বশেষ দুই বিশ্বকাপে। ২০১০ বিশ্বকাপে তার গোলেই সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত করে স্পেন। তবে অনেকদিন যাবত এই তারকা ফর্মহীনতার কারণে জায়গা পাচ্ছেন না দলে। বিশ্বকাপ স্কোয়াডে তার জায়গা পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম।

মারিও বালোতেল্লি: ফুটবলের ‘ব্যাড বয়’ খ্যাত ইতালিয়ান এই তারকা গত দুই বিশ্বকাপে ইতালির প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তবে দল বিশ্বকাপের টিকিট জোগাড় করতে না পারায় এবার আর তাকে বিশ্বকাপে দেখা যাবে না।

অ্যলেক্সিজ সানচেজ: চিলির এই স্ট্রাইকারকে বলা হয় অন্যতম প্রতিভাবান ফুটবলার। তবে এবার আর তাকে বিশ্বকাপ মাতাতে দেখা যাবে না। কারণ তার দল এবার বিশ্বকাপের টিকিট পায়নি।

দিদিয়ের দ্রগবা: আফ্রিকার তিনবারের সেরা হয়েছেন এই তারকা। খেলেছেন দুটি বিশ্বকাপও। তবে এবার আর বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ পাচ্ছেন না তিনি। কারণ তার দল এবার পায়নি বিশ্বকাপের টিকিট।

আন্দ্রে পিরলো: ইতালির সর্বকালের সেরা এ মিডফিল্ডার ইতালির হয়ে তিনটি বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছেন। ছিলেন ২০০৬ বিশ্বকাপেও। তবে এবার আর তাকে মাঝমাঠ মাতাতে দেখা যাবে। দেখা যাবে তার চুলচেরা সব পাসও।

ad