ক্রিকেটার ও দলনেতা হিসেবে আমি গর্বিত: মাশরাফি

mash in press conferance after cardiff win
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ১০ বছর পর ফিরে এসেই প্রথমবারের মত কোন বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে সেমিফাইনালে পৌঁছে গেছে বাংলাদেশ। নিঃসন্দেহে এটাই বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে এখন পর্যন্ত সেরা অর্জন হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। আর এমন অর্জনে ক্রিকেটার ও দলনেতা হিসেবে গর্বিত বলেই জানালেন টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

মাশরাফি সংবাদকর্মীদের কাছে দেয়া সাক্ষাতকারে বলেন, এটা বিশাল একটা পাওয়া। ক্রিকেটার হিসেবে আমি গর্বিত, দলনেতা হিসেবে তো বটেই। আমার অধীনেই দল চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সেমিফাইনালে উঠেছে, এর চেয়ে বেশি আর কী-ই বা চাওয়ার ছিল। সব সময় বাংলাদেশ দলকে এ অবস্থায় দেখতে চেয়েছি।

সেমিফাইনালে যাওয়ার পর দলের সবার প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে নড়াইল এক্সপ্রেস জানান, দলের সবাই খুশি। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টার ফলেই এ পর্যন্ত আসতে পেরেছি আমরা। এখন আরো সামনে এগিয়ে যেতে পারলে ভালো লাগবে।

তবে দেশবাসীর প্রতি প্রত্যাশার চাপ তৈরি করার আহ্বান জানিয়ে টাইগার দলনেতা বলেন, কেউ যেন ভাবতে না শুরু করে আমরা চ্যাম্পিয়ন হয়ে গেছি! এটা ক্রিকেটারদের ওপর চাপ বাড়িয়ে দেয়। ছেলেরা চাপ মুক্ত খেলতে পারলে খুশি হব সেরা দলগুলোই সেমিফাইনালে খেলবে। সবকিছুর একটা প্রসেস আছে আর ঐ প্রসেস অনুযায়ী এগুতে পারলে ভালো কিছু হবে ইনশাআল্লাহ। আশা করছি, সেমিফাইনালেও ভালো খেলব আমরা।

সেমিফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে কাকে পছন্দ এমন প্রশ্নে হাঁসতে হাঁসতে মাশরাফি রসিকতা করে বলেন, আমরাই যেখানে নিশ্চিত ছিলাম না সেখানে আমরাই যদি এখন প্রতিপক্ষ বাছাই করি তাহলে কিভাবে হবে!

টাইগার সমর্থকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, আমি আগেও বলেছি আজ আমরা যে অবস্থানে এসেছি তার কৃতিত্ব সমর্থকদের দিতেই হবে। কারণ আমরা অনেক খারাপ সময় পার করেছি, একের পর এক ম্যাচ হেরেছি, ক্লোজ ম্যাচ হেরেছি। তবুও তারা মাঠে এসে আমাদের সাপোর্ট করে গেছে। সবসময় তারা আমাদের এমন সাপোর্ট দিয়ে যাবেন আশা করি সেটা ভালো কিংবা খারাপ সময় হোক।

সাকিব ও রিয়াদ সম্পর্কে মাশরাফি তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, খারাপ সময় আসতেই পারে। সমালোচনা হতেই পারে। তাদের নিয়েও হয়েছে। কিন্তু তারা সময়মত প্রমাণ করেছে তাদের সামর্থ্য।

ad