টেস্টে সর্বনিম্ন রানে অলআউট হওয়ার রেকর্ড কার?

bangladesh
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: টেস্ট ম্যাচ মানে ব্যাটসম্যানদের কাছে দেখেশুনে খেলার সুযোগ। এখানে রান তোলার কোনো তাড়া না থাকায় সহজেই ব্যাটসম্যানরা দেখেশুনে রান তুলতে পারেন। এরপরও প্রায়ই ঘটে দুর্ঘটনা। যেমনটা ঘটেছে গতকাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বাংলাদেশের ম্যাচে। ১৮ ওভার ৪ বল খেলে মাত্র ৪৩ রানে অলআউট হয়েছে টাইগাররা।

তবে এটিই টেস্ট ইতিহাসের সর্বনিম্ন রান নয়। এর চেয়েও কম রানে অলআউট হয়েছে বেশ কয়েকটি দল। বাংলাদেশের ৪৩ রান টেস্ট ইতিহাসের ১১তম সর্বনিম্ন রানের স্কোর।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক টেস্টে নর্বনিম্ন রানের ইনিংসগুলো।

টেস্টে সর্বনিম্ন রানে অলআউট হওয়ার রেকর্ডটি নিউজিল্যান্ডের দখলে। ১৯৫৫ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাত্র ২৬ রানে অলআউট হয়েছিল ব্লাক ক্যাপসরা। এর পরের চারটি সর্বনিম্ন রানে অলআউট হওয়ার রেকর্ড দক্ষিণ আফ্রিকার। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তারা দুইবার ৩০ রানে ও একবার ৩৫ রানে অলআউট হয়েছিল। এছাড়া, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ৩৬ রানে একবার অলআউট হয়েছে তারা।

পঞ্চম সর্বনিম্ন রানের রেকর্ডটি অস্ট্রেলিয়ার। ১৯০২ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩৬ রানে অলআউট হয়েছিল তারা। এরপর নিউজিল্যান্ড ৪২, অস্ট্রেলিয়া ৪২, ভারত ৪২ ও সাউথ আফ্রিকা ৪৩ রানে অলআউট হয়েছে। এরপরের অবস্থানটিই বাংলাদেশের।

তবে বাংলাদেশ এই দলগুলোর চেয়ে একদিক থেকে এগিয়ে। টেস্টে সবচেয়ে দ্রুত অলআউট হওয়ার দিক দিয়ে চতুর্থ তারা। সবচেয়ে দ্রুত অলআউট হওয়ার রেকর্ডটি দক্ষিণ আফ্রিকার। মাত্র ১২ ওভার ৩ বলে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৩০ রানে অলআউট হয়েছিল তারা।

টেস্টে ৬০ রানের নিচে সবচেয়ে বেশিবার অলআউট হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তারা মোট ৮ বার ৬০ রান করতেও ব্যর্থ হয়। তাদের ঠিক পরের অবস্থানটা ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার। ৬০ রানের নিচে তারা অলআউট হয়েছে ছয়বার করে।

৬০ রানের আগে ব্ল্যাক ক্যাপসরা অলআউট হয়েছে পাঁচবার। ভারত ৬০ রানের আগে অলআউট হয়েছে তিন বার। তাদের সর্বনিম্ন সংগ্রহ ৪২ রান ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। পাকিস্তানও ৬০ রানের কমের ইনিংস খেলেছে তিনটি। ৪৯ তাদের সর্বনিম্ন স্কোর। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৬০ রানের আগে আউট হয়েছে চারবার আর জিম্বাবুয়ে আউট হয়েছে দুইবার।

ad