টেস্ট ক্রিকেট থেকে বিলুপ্ত হবে টস!

Test cricket, abolished, tossed,
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) টেস্ট ক্রিকেটে টস বিলুপ্তির পথে হাঁটা শুরু করেছে।

মুম্বাইয়ে এই মাসের ২৮-২৯ তারিখ সভায় বসবে আইসিসির কমিটি। এই সভায় টেস্ট ক্রিকেটে টস তুলে দেয়া হবে কিনা, তা নিয়ে আলোচনা হবে।

মুম্বাইয়ে টস নিয়ে আইসিসির কমিটিতে যে আলোচনা হবে, তার সংক্ষিপ্ত বিবরণী হাতে পেয়েছে ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো।

তাতে লেখা, টেস্টে এখন স্বাগতিক দলগুলো উইকেট যেভাবে বানায়, তা উদ্বেগজনক। কমিটির একাধিক সদস্য বিশ্বাস করেন, প্রতিটি টেস্টেই টসের সিদ্ধান্ত সহজাতভাবেই সফরকারী দলকে উপহার দেয়া উচিত; যদিও কমিটিতে এর দ্বিমত পোষণকারীরাও রয়েছেন।

আইসিসি কমিটিতে আছেন—অনিল কুম্বলে, অ্যান্ড্রু স্ট্রাউস, মাহেলা জয়াবর্ধনে, রাহুল দ্রাবিড়, টিম মে, নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইট, আম্পায়ার রিচার্ড ক্যাটেলবোরো, আইসিসির ম্যাচ রেফারি প্রধান রঞ্জন মাদুগালে, শন পোলক ও ক্লার কনর।

স্বাগতিক দল হোম কন্ডিশনের যে সুবিধা নিয়ে থাকে, সেটা কমাতেই টসের নিয়ম তুলে দেয়ার কথা ভাবছে আইসিসির কমিটি। ঘরের মাঠে যে দল খেলবে, তারা টস জিতলে প্রতিপক্ষ দলের তুলনায় অনেক বেশি সুবিধা পেয়ে থাকে।

টসপ্রথার নিয়ম অনুযায়ী, স্বাগতিক দলের অধিনায়ক প্রথমে টস করবে। টসে যে দল জিতবে, তারা নিজেদের পছন্দে বোলিং অথবা ব্যাটিং বেছে নিতে পারবে। এ পর্যন্ত সবই ঠিক ছিল। তবে বেশ কয়েক বছর ধরে টসে জেতার ওপর নির্ভর করে ম্যাচেও জয়-পরাজয় নির্ধারণ হয়ে যাচ্ছে।

স্বাগতিক দল নিজেদের সুবিধার্থে ইচ্ছামতো ব্যাটিং কিংবা বোলিং পিচ বানিয়ে প্রতিপক্ষ দলকে ধরাশায়ী করতে পারে। এ সমস্যা সমাধানে ২০১৯ সাল থেকে শুরু হওয়া নতুন ফরম্যাটের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপেই টসপ্রথা বিলুপ্তির আবেদন তোলা হচ্ছে বেশ জোরেশোরে।

টসপ্রথার বিকল্প পদ্ধতিও বের করা হয়েছে। যে দল প্রতিপক্ষের মাঠে খেলবে, তারা সিদ্ধান্ত নেবে আগে ব্যাটিং না বোলিং করবে। আগামী বছর আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে মুদ্রা নিক্ষেপ পদ্ধতি তুলে দিয়ে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করার প্রস্তাব করা হয়েছে। আগামী বছর অস্ট্রেলিয়া দলের ইংল্যান্ড সফরেও (অ্যাশেজ) পদ্ধতিটি প্রয়োগ করার কথা ভাবা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সাল থেকে ইংলিশ কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে টসে সন্তুষ্ট না হলে সফরকারী অধিনায়ক বল করার সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। তবে প্রতিপক্ষ দলের অধিনায়ক চাইলে টসপ্রথায়ও যেতে পারেন। এটির কার্যকর প্রয়োগ হয়তো আইসিসিকে উৎসাহিত করেছে। হোম কন্ডিশনের সুবিধা নিতে স্বাগতিক দলগুলো যে রকম উইকেট বানাচ্ছে, টস তুলে দেয়া হলে তা কমে আসবে।

ad