দুর্দান্ত ফ্রান্সের সামনে ‘কাভানিহীন’ উরুগুয়ে

france-
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: আজ কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে মুখোমুখি হচ্ছে ফ্রান্স ও উরুগুয়ে। এই ম্যাচের আগে ফ্রান্স ভয়ডরহীন থাকলেও উরুগুয়ের সামনে এসেছে একটি শঙ্কা- তা হলো কাভানিকে তারা আজ পাবে কি পাবে না।

চোটের কারণে ফরোয়ার্ড কাভানির খেলা নিয়ে অনিশ্চয়তা আছে।  পর্তুগালের বিপক্ষে ম্যাচে চোট পাওয়া কাভানিকে শেষ পর্যন্ত না পাওয়া গেলে ক্রিস্তিয়ান স্তুয়ানি উরুগুয়ের আক্রমণভাগে জুটি গড়তে পারেন তারকা ফরোয়ার্ড লুইস সুয়ারেজের সঙ্গে।

শুক্রবার (৬ জুলাই) রাত ৮টায় নিঝভী নভগরদ স্টেডিয়ামে শুরু হবে ম্যাচটি। খেলাটি সরাসরি দেখাবে মাছরাঙা, নাগরিক টিভি, বিটিভি ও সনি সিক্স।

তবে কাভানি থাকুক বা না থাকুক তা নিয়ে চিন্তা নেই ফ্রান্সের কোচ দেশমের। তিনি কাভানিকে ধরে নিয়েই সে অনুসারে ছক কষবেন।

কাভানি এবার বিশ্বকাপে দুর্দান্ত ফর্মে আছেন। এই তারকা পর্তুগালের বিপক্ষে একাই করেছেন দুই গোল। তাছাড়া, তাকে নিয়ে দেশমের চিন্তার কারণ হচ্ছে, এই তারকা খেলেন ফ্রান্সের ক্লাব পিএসজিতে। তাই ফ্রান্স সম্বন্ধে তার ধারণাটা একটু বেশিই।

প্রথম রাউন্ডের পর দ্বিতীয় রাউন্ডেও দুর্দান্ত খেলা ফ্রান্স উরুগুয়েকে ভয় না পেলেও ভয় পাচ্ছে রেফারিকে। কারণ তাদের চার খেলোয়াড় ইতোমধ্যেই একটি করে হলুদ কার্ড দেখে ফেলেছেন। তারা হলেন- পল পগবা, বেঞ্জামিন পাভার্ড, অলিভার জিরুড ও নাবিল ফকির। এই চারজন আজ হলুদ কার্ড দেখলেই মিস করবেন সেমি-ফাইনাল।

শুরুর ম্যাচগুলোতে ডিফেন্সিভ খেলা উরুগুয়ের জন্য এই ম্যাচে বিশাল চ্যালেঞ্জই অপেক্ষা করছে। কারণ এমবাপ্পে-গ্রিজম্যানরা যেভাবে আর্জেন্টিনার ডিফেন্স তছনছ করেছে তাতে আজ তাদের অতিরিক্ত সতর্ক থাকতেই হবে। বিশেষ করে এমবাপ্পেকে আলাদা নজরে রাখা হবে বলে জানিয়েছেন উরুগুয়ের ডিফেন্ডার ডিয়াগো গোডিন।

তিনি বলেন, ফ্রান্সের দারুণ কিছু আক্রমণভাগের খেলোয়াড় আছে। তাদের থামিয়ে রাখা খুব সহজ হবে না। তবে আমরা ছক কষে ফেলেছি। ওদের আটকে রাখার সব ধরনের চেষ্টা করা হবে।

ফ্রান্সের সম্ভাব্য একাদশ: হুগো লরিস, বেঞ্জামিন পাভার্ড, স্যামুয়েল উমতিতি, রাফায়েল ভারানে, লুকাস হার্নান্দেজ, পল পগবা, এনগালো কান্তে, করিন্তন টলিসো, আতোয়ান গ্রিজম্যান, অলিভার জিরুড ও কিলিয়ান এমবাপ্পে।

উরুগুয়ের সম্ভাব্য একাদশ: ফার্নান্দো মুসলেরা, ডিয়াগো গোডিন, জোসে গোমেজ, লুকাস টোরেইরা, ডিয়াগো লাক্সালট, মার্টিন ক্যাসেরেস, রদ্রিগো বেনটানচুর, কার্লোস সানচেজ, লুই সুয়ারেজ ও এডিনসন কাভানি/ক্রিস্তিয়ান স্তুয়ানি।

ad