নির্ভার থেকে ফাইনাল জিততে চায় আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ

Final, wants to win, Bangladesh,
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: আজ সকালে সাকিব আল হাসান নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে লিখেছেন- ‘নিদাহাস ট্রফি ২০১৮ এর ফাইনাল ম্যাচে বাংলাদেশের চূড়ান্ত লড়াই এবার ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে!’ তার এই বার্তা যেন টাইগার ভক্তদের আরও উজ্জীবিত করছে আর আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে যে বাংলাদেশ ফাইনালে জিতবে। তবে ফাইনালের লড়াইয়ে নির্ভার থাকতে চান অধিনায়ক সাকিব।

রবিবার (১৮ মার্চ) বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় কলম্বোর রণিল প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে ফাইনালে মাঠে নামবে টাইগাররা।

গতকাল ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে সাকিব বলেন, আমরা ফাইনাল নিয়ে আলোচনা করিনি। তাই এখনও একে চাপ হিসেবে মনে করছি না। কিভাবে এই ম্যাচকে আমরা দেখছি সেটাই হচ্ছে সবচেয়ে বড় আত্মোপলব্ধি। যদি আপনি চাপ নিয়ে ভাবেন, তাহলে সেটা চাপ। যদি না ভাবেন, তাহলে নয়। আমি নিশ্চিত প্রত্যেকে আয়েশি মেজাজে আছে এবং আগামীকালকের (আজকের) ম্যাচেও একই রকম থাকতে পারলে আমাদের জন্য ভালো।

সাকিবের মতে, আমাদের চেষ্টা থাকবে যত বেশি নির্ভার থেকে মাঠে নামা যায়। টি-২০ ম্যাচে ভালো করার শর্ত খোলা মন নিয়ে মাঠে নামা। তাই আশা করি কেউ কোনো চাপ নেবে না আর মনোযোগটা খেলার দিকেই থাকবে। আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। একইভাবে আরেকটা ম্যাচ মাত্র, যেটা আমরা জেতার জন্য মাঠে নামবো এবং সর্বোচ্চ চেষ্টাই করবো জেতার জন্য।

সাকিব বলেন, টস আর উইকেটের চেয়ে ভালো খেলাটাই শেষ পর্যন্ত ব্যবধান গড়ে দেবে। সত্যি কথা বলতে গেলে, উইকেট দুই ইনিংসেই খুব ভালো থাকে। কোনো পরিবর্তন হয় না। তাই আগে ব্যাটিং করলে ভালো স্কোর যেন গড়ে তুলতে পারি সেই চেষ্টাই থাকবে। আর যদি পরে ব্যাটিং করি তাহলে চেষ্টা থাকবে ভালো বোলিং করে ওদেরকে কিভাবে একটা মোটামুটি রানের ভেতর আটকে রাখতে পারি। ওদের ব্যাটিংটা অনেক শক্তিশালী, তাই ওদের বিপক্ষে ভালো কিছু করতে হলে আমাদের সেরা বোলিংটাই করতে হবে।

এদিকে ফাইনাল নিয়ে টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা গণমাধ্যমকে বলেছেন, রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, জুবেন্দ্র চাহাল ও ওয়াশিংটন সুন্দরকে ভালোভাবে আটকাতে পারলেই টাইগারদের জয়ের ভালো সম্ভাবনা রয়েছে।

তার মতে, রোহিত শর্মা এবং শিখর ধাওয়ান এই দুজনকে যদি আমরা দ্রুত ফেরাতে পারি তাহলে ম্যাচটা আমাদের হাতে থাকবে। একই সঙ্গে চাহাল ও ওয়াশিংটনকে ঠিকভাবে খেলতে হবে। এই চারজনকে নিয়ে আলাদা পরিকল্পনা করলে আমাদের দিকে ম্যাচটা আসতে পারে।

আজ টাইগাররা সত্যি জিতে গেলে তা হবে আমাদের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এক অর্জন। কোটি টাইগার ভক্তের বিশ্বাস আজ আর হৃদয়ে রক্তক্ষরণ নয়। আজ স্বপ্ন পূরণের দিন।

এদিকে, একাদশে আজ কোনো পরিবর্তনের খবর নেই। আগের ম্যাচের লংকানদের বিপক্ষে ম্যাচের সেরা ১১ জনই নামবে মাঠে। যদি শেষ মুহূর্তে পরিবর্তন হয়, তাহলে অপুর পরিবর্তে খেলতে পারেন আরিফুল। সেটাও উইকেট দেখে সিদ্ধান্ত নেবে টিম ম্যানেজম্যান্ট।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, শ্রীলংকায় আজ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ফাইনালের জন্য কোনো রিজার্ভ ডে নেই। বৃষ্টিতে ভেসে গেলে তাই বাইলজ অনুযায়ী দুই দলকেই চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হবে। তবে ভারি বৃষ্টি সন্ধ্যা পর্যন্ত স্থায়ী না হলে আশা করাই যায় সময়মতোই খেলা শুরু হবে।

ad