ফ্লোরিডায় রোমাঞ্চকর জয় পেল বাংলাদেশ

Jagoran- Florida, win, Bangladesh,
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় অনুষ্ঠিত তিন ম্যাচ টি-২০ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১২ রানের রোমাঞ্চকর জয়ে সিরিজে ১-১ ব্যবধানে সমতায় ফিরেছে বাংলাদেশ।

রবিবার (৫ আগস্ট) বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টায় ফোর্ট লডারডেল মাঠে শুরু হওয়া ম্যাচে টসে হেরে আগে ব্যাট করে বাংলাদেশ তুলেছিল ৫ উইকেটে ১৭১ রান। জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৯ উইকেটে ১৫৯ করেই থেমে যায়।

বাংলাদেশের শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি। ওপেনার লিটন দাস মাত্র ১ রান করে দলীয় ৭ রানের মাথায় আউট হয়ে যান। ওয়ান ডাউনে নামা মুশফিকুর রহিমও দ্রুত সাজঘরে ফিরে যান দলীয় ২৪ রানের মাথায় মাত্র ৪ রান করে। এরপর সৌম্য দলীয় ৪৮ রানে ফেরেন মাত্র ১৪ রান করে।

এরপর তামিম-সাকিবের দারুণ জুটি টাইগারদের লড়াইয়ে ফেরায়। চতুর্থ উইকেট জুটিতে ৫০ বলে গড়ে তোলেন ৯০ রানের দারুণ এক জুটি। আর তাতেই শুরুর হোঁচটের পরও বড় সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ। ৪৪ বলে ৬ চার ও ৪ ছক্কায় ৭৪ রানের দৃষ্টিনন্দন ইনিংস খেলেন তামিম। শুরু থেকেই আক্রমনাত্মক মেজাজ দেখানো সাকিব ৯ চার ও ১ ছক্কায় ৩৮ বল খেলে করেন ৬০ রান।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১০ বলে ১৩ ও আরিফুল হক ১ বলে ১ রান করে অপরাজিত থাকেন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে দুটি করে উইকেট নেন পল ও নার্স।

জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোরবোর্ডে ৫ রান উঠতেই সাজঘরে ফেরেন এভিন লুইস। মূল্যবান উইকেটটি তুলে নেন টাইগার পেস সেনসেশন মুস্তাফিজুর রহমান। এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে বিধ্বংসী ওপেনারকে ফেরান তিনি। ক্যারিবীয় শিবিরে দ্বিতীয় আঘাতটিও হানেন কাটার মাস্টার। মুশফিকের কট বিহাইন্ডে ফিরিয়ে দেন বিস্ফোরক ব্যাটার আন্দ্রে রাসেলকে। ফলে চাপে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

মারলন স্যামুয়েলসকে ফিরিয়ে সেই চাপ অব্যাহত রাখেন সাকিব আল হাসান। তাতে বাড়তি পারদ জোগান রুবেল হোসেন। এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে প্যাভিলিয়নের পথ ধরান দিনেশ রামদিনকে।

তার আউটের সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান ৪ উইকেটে ৫৮। বাংলাদেশকে পঞ্চম সাফল্য এনে দেন নাজমুল ইসলাম অপু। দলীয় ১১৬ রানে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওপেনার এন্ডু ফ্লেচারকে সাকিবের ক্যাচে পরিনত করেন তিনি। আউট হওয়ার আগে ফ্লেচার ৩৮ বলে ৪৩ রান সংগ্রহ করেন।

সাকিবের বল ডিপ মিড উইকেট দিয়ে বাউন্ডারিতে পাঠাতে গিয়েছিলেন কার্লোস ব্রাফেট। কিন্তু লিটনের দারুণ ক্যাচে ১১ রানে সাজঘরে ফেরেন ব্রাথওয়েড। তার আউটের সময়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান ৬ উইকেটে ১৩১।

সাকিবের অসাধারণ বোলিংয়ের পর ১৮ বলে ৩৯ রানের কঠিন দূরত্বে দাঁড়িয়ে ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। উইকেটে তখনো বিপজ্জনক পাওয়েল। ১৮তম ওভারে রুবেল মাত্র ৮ রান দেওয়ার সঙ্গে পাওয়েলকেও তুলে নিতে পারতেন। কিন্তু কভার থেকে ছুটে এসে পাওয়েলের ক্যাচ ফেলে দিয়েছেন সাকিব।

সেই পাওয়েলই মোস্তাফিজের করা পরের ওভারের দ্বিতীয় বলে ছক্কা মেরে জমিয়ে তোলেন লড়াই। ১০ বলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ তখন ২৬ রানের দূরত্বে। কিন্তু পরের বলেই পাওয়েলকে (৪৩) তুলে নিলেও এই ওভারে ১৬ রান দিয়েছেন মুস্তাফিজ।

শেষ ওভার ১৫ রান দরকার ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের। নাজমুল এসে অসাধারণ বোলিং করেছেন। মাত্র ২ রান দেওয়ার পাশাপাশি নিয়েছেন ২ উইকেট। এতেই সিরিজে ফেরার সঙ্গে টানা পাঁচ ম্যাচ হারের পর জয়ের মুখ দেখল বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের হয়ে মুস্তাফিজ ও নাজমুল নেন ৩টি করে উইকেট। ২ উইকেট নেন সাকিব। ম্যাচ সেরা ৪৪ বলে ৭৪ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলা তামিম।

ad