বিশ্বকাপের ‘কালো ঘোড়া’ বেলজিয়াম

Belgium
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: এবারের বিশ্বকাপের দুই হট ফেবারিট ব্রাজিল ও জার্মানি। আর্জেন্টিনা, ফ্রান্স ও স্পেনের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনাটাও কম নয়। তবে এবার বিশ্বকাপে ফেবারিটদের তালিকায় চমক হয়ে উঠে এসেছে বেলজিয়ামের নাম। চমক এই কারণে বলছি গত বিশ্বকাপেও তাদের কেউ গোনায় ধরেনি। অথচ ঠিক ৪ বছর পর তারা আছেন ফেবারিটদের তালিকায়।

বেলজিয়াম মোট ১০টি বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে তাদের সবচেয়ে বড় সাফল্য ১৯৭৪ সালে সেমি-ফাইনালে খেলা। ১০ বিশ্বকাপের মধ্যে ছয়টিতেই তার বাদ হয়েছে প্রথম রাউন্ড থেকে।  ২০০৬ আর ২০১০ বিশ্বকাপে তারা খেলার যোগ্যতাই অর্জন করতে পারেনি। এরপর ২০১৪ বিশ্বকাপে অংশ নিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে যায় তারা। এমন পরিসংখ্যান দেখে কেউ ভাবেনি ২০১৮ বিশ্বকাপে এই দলটাই ফেবারিটদের তালিকায় থাকবে।

যে কারণে তাদের ফেবারিট ভাবা হচ্ছে:

এবারের বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়িই রাউন্ডে ইউরোপের মধ্যে সর্বপ্রথম বিশ্বকাপের মূল পর্ব নিশ্চিত করে তারা। সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচের মধ্যে চারটিতেই জিতেছে তারা। শুধু মাত্র মেক্সিকোর সাথে একটি ম্যাচে ড্র করেছে।  বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে তারা শুধু একটি ম্যাচই ড্র করেছে। বাকি ৯ ম্যাচই জিতেছে তারা। তাও বিশাল বিশাল ব্যবধানে।

পারফেক্ট টিম বলতে যেটা বোঝায় এবার সেই দল নিয়েই বিশ্বকাপে যাবে বেলজিয়াম। এবার জার্মানি ও ব্রাজিলের পর সবচেয়ে ভারসাম্যপূর্ণ দল হচ্ছে তারা। তাছাড়া তাদের খেলোয়াড়েরা বেশ অভিজ্ঞও। খেলছেন ইউরোপের বড় বড় ক্লাবে।

এবার বেলজিয়ামের মূল গোলরক্ষকের দায়িত্ব পালন করবেন কর্তোয়া। যিনি এখন খেলছেন চেলসিতে। এবার তার ফর্ম বেশ ভালো যাচ্ছে।

বেলজিয়ামের ডিফেন্স কিন্তু বেশ শক্ত। টবি অ্যালডারউইয়ারল্ড খেলবেন লেফটব্যাকে আর  ক্রিশ্চিয়ান কাবাসিল রাইটব্যাকে। সেন্টার ডিফেন্ডারের দায়িত্ব পালন করবেন ভিনসেন্ট কোম্পানি ও থমাস ভারমালেন। তাদেরকে বোকা বানিয়ে বল জালে পাঠানো বেশ কঠিন।

বেলজিয়ামের সবচেয়ে শক্তিশালী জায়গা হচ্ছে তাদের মিডফিল্ড। কারণ এই পজিশনে খেলেন বিশ্ব মাতানো বেশ কিছু তারকা। মিডফিল্ডে ডি ব্রুইনি আর মানোইনি ফেলানি খেলবেন দুই পাশে। আর মাঝখানে থাকবেন নাসের মচাদলি ও ড্রইস মারটেন। এই চার তারকার কম্বিনেশনটা যদি জমে যায় তাহলে তাদের রুখা যে কারো জন্যই কঠিন। তাছাড়া এদের কেউ একজন কাজ না করলে আদনান জানুজাই তো আছেন।

স্ট্রাইকিংয়ে দায়িত্ব পালন করবেন অভিজ্ঞ ক্রিশ্চিয়ান বেনটেকে ও এডেন হাজার্ড। এই দুই তারকা গত বিশ্বকাপও খেলেছিলেন। এবার ক্লাবের হয়েও অসাধারণ খেলেছেন তারা।

এসব কারণেই এবার তাদের অন্যতম ফেবারিট মানা হচ্ছে। কয়েকদিন আগে তো নেইমার তাদের ডার্ক হর্স বলেছেন। তারা যে চমক দেখাতে পারে সেটা স্বীকারও করেছেন।

ad